• শুক্রবার   ০৭ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৪ ১৪২৮

  • || ২৬ রমজান ১৪৪২

করতে যায় চুরি, ‘ধরা পড়ার ভয়ে বৃদ্ধাকে হত‌্যা’

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০২১  

বাসায় চুর করতে গিয়ে সাভারের বিরুলিয়ায়  বৃদ্ধা ফাতেমা বেগমকে হত‌্যা করে রাজমিস্ত্রী রবিউল মির্জা (২৮) ও  কামরুল ইসলাম (১৮)। এরপর লাশ বাথরুমের পাশ লাশ রেখে পালিয়ে যায় তারা। সম্প্রতি র‌্যাপিড অ‌্যাকশন ব‌্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-এর হাতে গ্রেপ্তারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দুই জনই এমন তথ‌্য দিয়েছে। শুক্রবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব এই তথ‌্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার আসামিরা বলেছে, ঘটনার দিন ছিল বুধবার (৭ এপ্রিল)। ওই দিন তারা ভিকটিমের বাসার পাশের আরেক বাসায় রাজমিস্ত্রির কাজ করছিল। ভিকটিমকে গোসলখানায় যেতে দেখে তারা বাসায় ঢুকে চুরি করার চেষ্টা করে। এসময় ভিকটিম তাদের বাধা দিলে আসামিরা তাকে লাথি মারে। এতে ফাতেমা বেগম সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলেন। ঘটনাটি জানাজানির ভয়ে আসামিরা ভিকটিমের হাতে, মুখে, ও গলাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে বাথরুমের পাশে ফেলে রাখে। পরে তারা সেখান থেকে আবার পাশের বাসায় কাজে চলে যায়। যেন ঘটনাটি কেউ বুঝতে না পারে।  

র‌্যাব আরও জানায়, গত ৭ এপ্রিল বৃদ্ধাকে সাভারের বিরুলিয়ায় তার নিজ বাসায় আসামিরা হত্যা করে পালিয়ে যায়। ঘটনার দুই দিন পর ৯ এপ্রিল নিহতের ছেলে  জাহিদুল আলম সাভার মডেল থানার সহযোগিতায় ভিকটিমের লাশ উদ্ধার করা হয়। এরপর অজ্ঞাতনামা ব‌্যক্তিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন তিনি।  মামলাটি চাঞ্চল্যকর ও ক্লুলেস হওয়ায় পুলিশের পাশাপাশি  ছায়া তদন্ত শুরু করে র‌্যাব। পরে প্রযুক্তির সহায়তায় বৃহস্পতিবার দুপুর ও রাতে অভিযান চালিয়ে সাভারের বিরুলিয়া এলাকা থেকে দুই জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

এই ব‌্যাপারে র‌্যাব-৪-এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সাজেদুল ইসলাম সজল বলেন, ‘প্রযুক্তির সহায়তায় দুই খুনিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যার কথা স্বীকার করেছে। দুপুরে তাদের সাভার মডেল থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে।’