• শনিবার   ১৯ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৬ ১৪২৮

  • || ০৯ জ্বিলকদ ১৪৪২

ছাতা কেনার আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখা জরুরি

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৯ জুন ২০২১  

ছাতা এমন একটি প্রয়োজনীয় জিনিস যা শীত-গরম-বর্ষা সবসময়ই কাজে লাগে। তবে বৃষ্টিতে এর ব্যবহার অধিক লক্ষণীয়। এছাড়া গ্রীষ্মে রোদের তীব্রতা থেকে বাঁচতেও ছাতাই ভরসা। বর্তমান সময়ে আকাশে চলছে রোদ-বৃষ্টির খেলা। এখন গ্রীষ্মের খরতাপে যেমন পুড়তে হচ্ছে, তেমনি আবার হঠাৎ আসা বৃষ্টিতেও ভিজতে হচ্ছে। তাই সঙ্গে একটি ছাতা রাখার আসলেই কোনো বিকল্প নেই।

এক্ষেত্রে কম টাকায় বারবার ছাতা কিনতে যাবেন না। এতে ভোগান্তি এবং খরচ দুটোই বাড়বে। এর চেয়ে বরং দাম দিয়ে একটি ভালো মানের ছাতা কিনলে খরচ ও ভোগান্তি দুটোই বাঁচবে।

আজকাল ছাতা ফ্যাশন অনুসঙ্গ হিসেবেও ব্যবহৃত হচ্ছে। তাই ছাতা কেনার আগে কিছু বিষয় খেয়াল রাখা জরুরি। চলুন তবে সে বিষয়গুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

>> টিপ বাটনের ছাতা যদি কিনেন, তাহলে বাটনটি ঠিকমতো কাজ করে কি-না, তা যাচাই করে নিন।

>> অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি শিকের ছাতা বেশি মজবুত ও টেকসই হয়ে থাকে। এতে মরিচাও ধরে না।

>> অনেক সময় ছাতার হাতল থাকে পাতলা ও ভঙ্গুর। হাতল যেন টেকসই এবং মজবুত হয়, তা দেখে কিনুন।

>> ছাতার ভেতরের সবগুলো রড ঠিকমতো সেলাই করা আছে কি-না, তা বারবার খুলে ও বন্ধ করে দেখে নিন।

>> শুধু ফ্যাশনের দিকে নজর রেখে ছাতা কেনাটা বোকামি। ফ্যাশনেবল ছাতাগুলো শুধু আকর্ষণীয় হয়, টেকসই হয় না।

>> ছাতা ভেজানোর পর কিছুক্ষণ মেলে রেখে শুকিয়ে তারপর ভাঁজ করে ছাতার ব্যাগে ভরে রাখলে ছাতা ভালো থাকবে।

>> ৫ থেকে ৬ শিকের ছাতার চেয়ে ১০ শিকের ছাতা দীর্ঘস্থায়ী হয়ে থাকে। ঝড়-বৃষ্টিতেও এই ছাতা উল্টে যাওয়ার ভয় থাকে না।

>> ছাতা কেনার সময় এর কাপড় দেখে কিনবেন। বিভিন্ন কাপড়ের ছাতা পাওয়া যায় বাজারে। কাপড়ের মান ভালো কি-না পরীক্ষা করতে পানিতে ভিজিয়ে দেখুন ছাতা।

বাজারে এখন দেশি ও বিদেশি বিভিন্ন রকমের ছাতা পাওয়া যায়। বিদেশি ছাতার মধ্যে চায়না ছাতা বেশি জনপ্রিয়। তবে বার্মা, থাইল্যান্ড, জাপান ও অস্ট্রেলিয়ান ছাতারও চাহিদা আছে। ছাতার বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মধ্যে আছে মুন, চেরি, শংকর, এটলাস প্রভৃতি। দেশি ব্র্যান্ডের মধ্যে আছে- অ্যাটলাস ও শরীফ ছাতা। বিদেশি ছাতাগুলো দেখতে আকর্ষণীয় হওয়ায় ট্রেন্ডে এখন বিদেশি ছাতার কদর অনেক।

ছাতার দাম

>> স্থান ও মার্কেটের ওপর নির্ভর করে ছাতার দামে রকমফের হতে পারে। তবে সেক্ষেত্রে খুব একটা বেশি পার্থক্য হবে না। দেশি ছাতার দাম চায়না ছাতার তুলনায় কিছুটা বেশি। ভাঁজ করা যায় এমন ছাতাগুলো পাওয়া যাবে ১৫০ থেকে ৩০০ টাকায়।

>> দুই ভাঁজের ছাতার দাম পড়বে ২০০ থেকে ৬০০ টাকা ও তিন ভাঁজের ছাতা পাবে ৩৫০ থেকে ১২০০ টাকায়। শিশুদের জন্য কার্টুন ছাতার দাম পড়বে ২৫০ থেকে ৫০০ টাকা।

>> ভাঁজহীন দেশি ছাতা পাওয়া যাবে ১৫০ থেকে ৫৫০ টাকায়। ছাতা ব্যবহারের পর ক্যাপসুলের মতো বক্সে বন্ধ করে রাখা যায়, এমন ছাতাগুলো পাবেন ৮০০ থেকে ৯০০ টাকায়।