• শনিবার   ১৯ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৬ ১৪২৮

  • || ০৯ জ্বিলকদ ১৪৪২

দুটি সেতুর অভাবে একটি সড়ক অচল

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৭ মে ২০২১  

গাজীপুর মহানগরীর ঢাকা-বাইপাস সড়কের নাওজোর এলাকায় নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের পার্শ্ব থেকে পশ্চিম অভিমুখী কাশিমপুর বাজার হয়ে জিরানী বাজার পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার সড়কটিতে দুইটি সেতুর অভাবে মানুষ ও যানবাহন সরাসরি চলাচল করতে পারছে না।

সড়কটির ভাঙাব্রিজসংলগ্ন ফেউচারগাড়া বিলে এবং তুরাগ নদে দুইটি সেতু নির্মাণ করা হলে মহানগরীর কাশিমপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকাবাসী জেলা শহরসহ রাজধানী ও জিরানী বাজার হয়ে সাভার-নবীনগর সড়কে উঠে বিভিন্ন গন্তব্যে সহজেই যাতায়াত করতে পারবে। তাছাড়া শিল্পনগরী কোনাবাড়ী এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক এড়িয়ে এই সড়ক ব্যবহার করলে সহজেই নিজস্ব গন্তব্যে পৌঁছানো সম্ভব হবে। বর্তমানে সেতু দুইটির অভাবে সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষ প্রতিদিন ভাঙাব্রিজসংলগ্ন ফেউচারগাড়া এলাকায় বাঁশের সাঁকো এবং তুরাগ নদে নৌকাযোগে জনপ্রতি ১০ টাকা ভাড়ায় পারাপার হয়ে ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নাওজোরে নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের দক্ষিণ পার্শ্ব থেকে পশ্চিম অভিমুখী সড়কটি কাশিমপুর বাজার হয়ে সাভার-নবীনগর সড়কের জিরানী বাজারে গিয়ে মিশেছে। নাওজোর থেকে জিরানী বাজার পর্যন্ত সড়কটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১২ কিলোমিটার। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের জাইকা প্রজেক্টের আওতায় সড়কটির উন্নয়ন ও ভাঙাব্রিজ পর্যন্ত দুই কিলোমিটার সড়ক ইতিমধ্যে পাকা হয়েছে।

এ ছাড়া কাশিমপুর বাজার হয়ে সাভার-নবীনগর সড়কের জিরানী বাজার পর্যন্ত সড়কটির উন্নয়ন কাজ প্রায় সমাপ্তির দিকে। তবে পথিমধ্যে সড়কটির ভাঙাব্রিজ সংলগ্ন ফেউচারগাড়া বিলে এবং তুরাগ নদে কোনো সেতু না থাকায় সড়কটি দিয়ে সরাসরি মানুষ বা যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। স্থানীয় বাসিন্দারা দীর্ঘদিন যাবত দাবি করে এলেও গুরুত্বপূর্ণ দুইটি সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে না। সেতু দুইটির অভাবে সড়ক থাকা সত্ত্বেও এলাকাবাসী কোনো সুফল পাচ্ছে না। এ কারণে কাশিমপুর ও অন্যান্য স্থান থেকে বর্ষা মৌসুমে মানুষ নৌকাযোগে ভাঙাব্রিজ পর্যন্ত এসে সেখান থেকে জেলা শহরসহ বিভিন্ন গন্তব্যে যাতায়াত করে থাকে।