• বৃহস্পতিবার   ০৪ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২০ ১৪২৭

  • || ২১ রজব ১৪৪২

দুধ চা দিতে না পারায় হামলা, ঝলসে গেল দোকানির শরীর

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারি ২০২১  

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে চা দিতে দেরি হওয়ায় হামলা চালিয়ে দোকানিকে গুরুতর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলাকালে চা তৈরির ফুটন্ত পানি পড়ে ও ছিটকে দোকানির মুখ-হাতসহ শরীরের একাধিক স্থানে ঝলসে গেছে। দগ্ধ চা দোকানি অজিত সরকার কুমুদিনী হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মির্জাপুর পৌর সদরের কালীবাড়ি রোডে (চিকনগলী)।

অভিযুক্তরা হলেন- মির্জাপুর বাজার কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক পোষ্টকামুরী গ্রামের শহীদুল আলম রতনের ছেলে নাফিউ।


এদিকে হামলাকারী ও তাদের পরিবারের নজরদারির কারণে দরিদ্র ও নিরীহ পরিবারটি ভয়ে মুখ খুলতে এবং আইনের আশ্রয় নিতে পারছেন না বলে জানা গেছে। তবে বিষয়টি স্থানীয় সাংসদ, সাবেক দুই মেয়র এবং আওয়ামী লীগ নেতা অবহিত রয়েছেন বলে আহত অজিত সরকার জানান।

জানা গেছে, পৌর শহরের বণিকপাড়ার বাসিন্দা রতন সরকারের ছেলে অজিত সরকার (৫০) কালীবাড়ি রোডের চিকনগলিতে দীর্ঘদিন ধরে ছোট একটি চায়ের দোকান করেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নাফিউজ একই রোডে থাকা তাদের দোকান থেকে কর্মচারীকে দুধ চা নেয়ার জন্য অজিতের দোকানে পাঠান। দোকানে দুধ চা নেই, রঙ চা আছে জানালে কর্মচারী ফিরে যান। কিছুক্ষণ পর এসে দুধ চা না থাকায় নাফিউ এসে দোকানি অজিত সরকারের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে লাথি ও কিল ঘুষি মারতে থাকে। 

এ সময় তার হাতের কেতলিতে থাকা চা তৈরির ফুটন্ত পানি পড়ে ও ছিটকে অজিতের মুখ-হাতসহ শরীরের একাধিক স্থান দগ্ধ হয়। আহত অজিত হাসপাতালে যাওয়ার চেষ্টা করলে নাফিউজের বাবা মির্জাপুর বাজার কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহীদুল আলম রতন তাকে বাধা দেন বলে অজিত জানিয়েছেন। পরে অজিতের লোকজন এসে তাকে কুমুদিনী হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করেন।

এ ব্যাপারে নাফিউর বাবা শহীদুল আলম রতন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আজ সকালে বলেন, ঘটনাটি অপ্রত্যাশিত। আহত অজিতের চিকিৎসার খোঁজ-খবর রাখা হচ্ছে। সুস্থ হলে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসা করা হবে।