• মঙ্গলবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১৩ ১৪২৭

  • || ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বাজার মূলধনের নয়া রেকর্ড দেশের পুঁজিবাজারে

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৩১ ডিসেম্বর ২০২০  

দেশের শেয়ারবাজারে টানা সূচক বাড়ার কারণে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন ও বাজার মূলধনে একের পর এক রেকর্ড সৃষ্টি হচ্ছে। রবিবার সূচকের বড় ধরনের উত্থানের কারণে ১৭ মাসে সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছায়। একইদিনে ডিএসইর বাজার মূলধন ইতিহাসের সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছায়। এক দিনের ব্যবধানে সোমবার সেই রেকর্ডও ভেঙে যায়। রবির মতো বহুজাতিক কোম্পানির তালিকাভুক্তি এবং বিনিয়োগকারীদের আস্থা বেড়ে যাওয়ার কারণে শেয়ারবাজারের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ডিএসইর বাজার মূলধন ৪ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। সোমবার লেনদেন শেষে বাজারটির মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৪১ হাজার ৮২৮ কোটি টাকা, আগের দিন ছিল ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৩৯৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ একদিনে বাজার মূলধন বেড়েছে ২ হাজার ৪৩১ কোটি টাকা। বাজার মূলধন বাড়ার অর্থ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম সম্মিলিতভাবে ওই পরিমাণ বেড়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, বেশিরভাগ কোম্পানির দর বাড়ার কারণে বাজার মূলধনে রেকর্ড সৃষ্টি হওয়ার দিনে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচক বেড়েছে। এর মাধ্যমে টানা চার কার্যদিবস ঊর্ধ্বমুখী থাকল শেয়ারবাজার। সেই সঙ্গে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ১৭ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থায় উঠে এসেছে।

দিনের লেনদেনের শেষদিকে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৫ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৩৪৪ পয়েন্টে উঠে এসেছে। এর মাধ্যমে ২০১৯ সালের ৪ জুলাইয়ের পর সূচকটি সর্বোচ্চ অবস্থানে উঠে আসল। গত বছরের ৪ জুলাই সূচকটি ৫ হাজার ৩৮০ পয়েন্টে ছিল।

ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ আগের দিনের তুলনায় ৪ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৩১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ৮ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৯২৪ পয়েন্টে উঠে এসেছে।

মূল্য সূচকের এই উত্থানের দিনে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৫৪ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ১৪২টি এবং ৬৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৩৪৬ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১ হাজার ৫২৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা। সে হিসাবে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কমেছে ১৮২ কোটি ৩২ লাখ টাকা।

ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১৩০ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আইএফআইসি ব্যাংকের ৭৩ কোটি ২৫ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৬৪ কোটি ২৪ লাখ টাকার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বেক্সিমকো ফার্মা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৪৭ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৪৭ কোটি ১১ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৯২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩২টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১১৭টির এবং ৪৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।ব্যবসা বাণিজ্য/ অপূর্ব কুমার