• সোমবার   ০৮ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২৪ ১৪২৭

  • || ২৪ রজব ১৪৪২

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, অন্তঃসত্ত্বা এতিম তরুণী

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২১  

টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার সানবান্ধা গ্রামে সনাতন ধর্মের এক যুবকের বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন এক এতিম মুসলিম তরুণী (১৯)। এ ঘটনায় মামলার পর ওই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতার যুবকের নাম অসীম ধোপা (৩৭)। তিনি করটিয়া হাটখোলা এলাকার প্রয়াত অতুল ধোপার ছেলে।


মামলা সূত্রে জানা যায়, শিশুকালে মা-বাবা মারা যাওয়ার পর ওই তরুণী টাঙ্গাইল সদর উপজেলার করটিয়া কলেজপাড়ার লাল মিয়ার বাড়িতে তার প্রতিবেশী বড় বোনের ভাড়া বাসায় থাকতেন। ওই বাড়িতে থাকার সুবাদে অসীম ধোপার সঙ্গে তার পরিচয় হয়। অসীম ধোপা একাধিকবার তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। তবে ভিন্ন ধর্মের হওয়ায় তার প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন ওই তরুণী। এক পর্যায়ে অসীম ধোপা নানা কৌশলে তাকে প্রেমের ফাঁদে ফেলেন। পরে এতিম ও অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে তাকে একাধিবার ধর্ষণ করেন।

সর্বশেষ গত বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর করটিয়া হাটে অসীম ধোপার কাপড়ের গোডাউনের ভেতর পুনরায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করেন। এতে ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। তরুণী বিয়ের জন্য চাপ দিলে অসীম ধোপা বিয়ে এবং কোনোভাবেই ধর্মান্তরিত হবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। পরে ওই তরুণী জানতে পারেন, অসীম ধোপা বিবাহিত এবং সন্তানের জনক।

বিয়ের জন্য চাপ দেয়ায় তরুণীকে গর্ভের সাত মাসের সন্তান নষ্ট করতে বলেন। এতে রাজি না হওয়ায় তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেন। গত ২০ জানুয়ারি বাধ্য হয়ে ওই এতিম তরুণী বাদী হয়ে টাঙ্গাইল মডেল থানায় মামলা করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও টাঙ্গাইল মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রতিমা রাণী তরফদার জানান, মামলার পরই অভিযুক্ত অসীম ধোপাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তরুণী যাতে ন্যায়বিচার পান সে বিষয়ে সর্বাত্মক চেষ্টা আছে।