• বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৭

  • || ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

১৯৮

স্কুলছাত্রীকে সাড়ে ৪ মাস আটকে রেখে ধর্ষণ!

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১১ আগস্ট ২০২০  

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় অপহরণের পর সাড়ে চার মাস জিম্মি রেখে ধর্ষণের ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি রেজাউল করিমকে (৪৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ধুনট থানা থেকে আদালতের মাধ্যমে তাকে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গতকাল সোমবার মধ্যরাতে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার রুপনগর এলাকার একটি বাসা থেকে রেজাউল করিমকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার জিম্মিদশা থেকে অপহরণের পর ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ।

আজ দুপুরের দিকে উদ্ধারকৃত স্কুলছাত্রীর শারীরিক পরীক্ষার জন্য তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার মেয়েটি উপজেলার বিশ্বহরিগাছা গ্রামের বাসিন্দা। মেয়েটি স্থানীয় একটি উচ্চবিদ্যালয় থেকে এ বছর এসএসসি পাস করেছে।

অন্যদিকে রেজাউল করিম উপজেলার শেহলিয়াবাড়ি গ্রামের রহিম বক্সের ছেলে।

দুই সস্তানের জনক রেজাউল করমি বিশ্বহরিগাছা গ্রামে তার বন্ধু সুজন মিয়ার মাধ্যমে ওই স্কুলছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু রেজাউল করিমের প্রেমে সাড়া দেয়নি স্কুলছাত্রী। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে গত ২৬ মার্চ বিকেলের দিকে মেয়েটির বাড়ির পাশের রাস্তা থেকে রেজাউল করিম তার বন্ধু সুজনের সহযোগিতায় মেয়েটিকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে অপহরণ করে।

পরে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার রুপনগর এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় ওই স্কুলছাত্রীকে জিম্মি রেখে ধর্ষণ করে রেজাউল করিম।

এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে গত ২৭ মার্চ ধুনট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় রেজাউল কমির ও তার সহযোগী সুজন মিয়াকে আসামি করা হয়।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, ‘উদ্ধারকৃত ভুক্তভোগীর জবানবন্দি রেকর্ডের জন্য বগুড়া আদালতে এবং মামলার প্রধান আসামি রেজাউল করিমকে কারাগারে পাঠনো হয়েছে।’

নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর