• রোববার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ১০ ১৪২৮

  • || ১৮ সফর ১৪৪৩

‘চাকরি রক্ষায়’ ভোগান্তি নিয়ে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০২১  

মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই নাজিরপাড়া গ্রামের ইব্রাহীম মিয়া। তিনি নাটোরের একটি জুট মিলে কাজ করেন। পরিবারের সদস্যদরে সাথে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে এসেছিলেন বাড়ি। কারখানা আজ থেকে খুলবে এই খবর পেয়ে স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়েছেন।

রবিবার ভোর বেলা গোড়াই থেকে রিকশাযোগে ৩০ টাকার ভাড়া ৬০ টাকা দিয়ে মির্জাপুর এসেছেন। সকাল ছয়টায় তাদের দেখা যায় মির্জাপুর বাইপাস বাসস্ট্যান্ডে।

জানতে চাইলে তারা বলেন, নাটোর যাবেন তাই গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছেন। কিছুক্ষণ পর একটি মালবাহী ট্রাক তাদের দেখে থামে। ওই ট্রাকেই সিরাজগঞ্জ পর্যন্ত যেতে প্রস্তুত। পরে কিভাবে যাবেন জানতে চাইলে তারা বলেন, পরেরটা পরে আগে তো যাই। পরে সেই মালবাহী ট্রাকের ছাদে তাদের মালামাল উঠিয়ে ইব্রাহীম সেখানে এবং তার স্ত্রী ট্রাকের ভেতরে উঠে রওনা দেন।

ওই সময় মহাসড়কে কোনো গণপরিবহন দেখা যায়নি। কিছু কিছু পণ্যবাহী ট্রাক, পিকআপভ্যান ও কাভার্ডভ্যান চলছে।

প্রতি মিনিটে ৫/৭ টি মোটরসাইকেল চলছে। এছাড়া সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ব্যাটারিচালিত রিকশায় মানুষ যাতায়াত করছে।

বাইপাস বাসস্ট্যান্ডে দেখা গেছে সিএনজি চালিত অটোরিকশা, ব্যাটারিচালিত রিকশা ও ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল। সবাই যাত্রী ডাকছে টাঙ্গাইল, চন্দ্রা ও ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গার।

মির্জাপুর বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা ধলা মিয়া ও আব্দুল খালেকের সাথে কথা হলে তারা জানান, লকডাউন হলেও অফিসে যেতে হবে। চাকরি রক্ষায় তারা যে কোনভাবে যাবেন বলে জানান।

ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট রুবাইত হোসেন বলেন, মহসড়কে গণপরিবহন চলছে না। শুধুমাত্র পণ্যবাহী ট্রাক, জরুরি সেবাসমূহের যানবাহন ও অ্যাম্বুলেন্স চলছে। পণ্যবাহী ট্রাকে যাতায়াত অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। এটি কখনোই মানা হবে না।