• বৃহস্পতিবার   ২৮ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ১৩ ১৪২৮

  • || ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

গাজীপুরে চোর দলের সর্দার গ্রেফতার

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২ সেপ্টেম্বর ২০২১  

গাজীপুরে বাসা বাড়ির দরজা ও গ্রিল কেটে চুরি করার হোতা বিভিন্ন অপরাধে অভিযুক্ত বিভিন্ন থানায় ৮/১০টি মামলার আসামি অহিদুল ইসলাম নয়ন (৪০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে কোনাবাড়ি থানার পুলিশ। সে বরিশালের বাকেরগঞ্জ থানার কাকুড়িয়া এলাকার শাহ আলম মোল্লার ছেলে। গ্রেফতারকালে তার কাছ থেকে চুরির কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদিসহ চোরাই মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। 

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) কোনাবাড়ি থানার ওসি আবু সিদ্দিক জানান, গ্রেফতারকৃত যুবক দিনে দুপুরে বাসা-বাড়ির দরজা ভেঙ্গে, তালা ও গ্রীল কেটে ঘর থেকে মালামাল লুট চক্রের দলনেতা। এ চোর চক্রটি গত ১৫ মার্চ নগরীর কোনাবাড়ি থানাধীন হরিণাচালা এলাকার হাবিবুর রহমানের ৭ম তলার ফ্ল্যাটে তালা ভেঙ্গে ঘর থেকে নগদ ৪৫ হাজার টাকা, ল্যাপটপ ও মোবাইলসহ বিভিন্ন মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় থানায় মামলা হলে প্রযুক্তি ব্যবহার করে একটি মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে অহিদুল ইসলাম নয়নের দুই ভাইসহ ৪ জনকে সম্প্রতি বিভিন্ন স্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়। তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারেক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় এবং তাদের দলনেতা অহিদুল ইসলাম নয়নের নাম প্রকাশ করে। তাদের দেয়া তথ্যে পুলিশ ঢাকার উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে অহিদুল ইসলাম নয়নকে বুধবার বিকেলে গ্রেফতার করে। এসময় তার কাছ থেকে চোরাই চারটি মোবাইল ফোন এবং চুরির কাজে ব্যবহৃত কাউয়াল, স্ক্রু-ডাইভার, কাটার, প্লাস ও বিভিন্ন সরঞ্জামাদিসহ চোরাই মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। 

তিনি আরো জানান, এ চক্রের সদস্যরা কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে গাজীপুর ও রাজধানীর উত্তরায় চুরি করতো। চুরির আগে তারা বাসা টার্গেট করে খোঁজ খবর নিত। চুরির ঘটনায় মামলা হলে  তদন্ত কর্মকর্তাসহ বাদী পক্ষকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে ভয়ভীতি দেখাতো ও ব্ল্যাক মেইলিং করতো তাদের দলনেতা অহিদুল ইসলাম নয়ন। গাজীপুর শহরের জয়দেবপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন শহীদ নিয়ামত সড়কে তার একটি বিশাল অফিস রয়েছে। ওই অফিসে বসেই সে বাসা বাড়িতে চুরির ঘটনাগুলো নিয়ন্ত্রণ ও পরিচালনা করতো। প্রায় সবগুলো চুরির কাজে নয়ন নিজে উপস্থিত থেকে অংশ নিয়েছে বলেও জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা। বৃহস্পতিবার দুপুরে অহিদুল ইসলাম নয়নকে গাজীপুর আদালতে পাঠানো হলে তাদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।