• রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৮

  • || ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

ইসলামের প্রচার প্রসারে শেখ হাসিনা সরকারের অবদান

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৬ অক্টোবর ২০২১  


মহান আল্লাহ যুগে যুগে পৃথিবীতে মানবজাতির হিদায়েতের জন্য নবী ও রসুল পাঠিয়েছেন। তারই ধারাবাহিকতায় আল্লাহর অলিরা ইসলামের প্রচার প্রসারে বিশ্বে নিজেদের আত্মনিয়োগ করেছেন। বাংলাদেশ অলি আল্লাহর দেশ। স্বাধীন সোনার বাংলাদেশে ইসলাম প্রচার প্রসারে বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অনেক অবদান রয়েছে। 

এ দেশে ইসলামের সেবায় তারই সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার সরকার ইসলাম প্রচার প্রসারে অনেক অবদান রেখে চলেছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা সদর ও উপজেলায় ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন করে তিনি এ দেশের ধর্মপ্রাণ সাধারণ মানুষের মন জয় করেছেন। 

ইসলামের ভ্রাতৃত্ব ও শান্তির বাণী আল কোরআন ও সুন্নাহর প্রচার প্রসারে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের কাজ সারা দেশে এগিয়ে চলছে। এ বছর মুজিববর্ষে ইতিমধ্যে সারা দেশে ৫০টি মডেল মসজিদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেছেন। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দূরীকরণ, নারীর সহিংসতা রোধ, সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতেও ভূমিকা রাখবে ৫৬০টি মডেল মসজিদ। 
৪০ শতাংশ জায়গার ওপর নির্মিত জেলা পর্যায়ে চারতলা, উপজেলায় তিনতলা, উপকূলীয় এলাকায় চারতলা আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সংবলিত সুবিশাল এসব মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে নারী ও পুরুষের আলাদা ওজু ও নামাজ আদায়ের সুবিধা, লাইব্রেরি, গবেষণা কেন্দ্র, ইসলামিক বই বিক্রয় কেন্দ্র, অতিথিশালা, বিদেশি পর্যটকদের আবাসন, মৃতদের গোসলের ব্যবস্থা, হজযাত্রীদের নিবন্ধন ও প্রশিক্ষণ, ইমাম মুয়াজ্জিনদের প্রশিক্ষণ, অটিজম কেন্দ্র, গণশিক্ষা কেন্দ্র, ইসলামী সংস্কৃতি কেন্দ্র থাকবে। এছাড়া ইমাম-মুয়াজ্জিনদের আবাসনসহ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য অফিসের ব্যবস্থা এবং গাড়ি পার্কিং সুবিধা রাখা হয়েছে। 

এদেশের আলেম উলামা পীর মাশায়েখদের দাবি ছিল স্বতন্ত্র ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা। আলিয়া মাদরাসার শিক্ষা ব্যবস্থা আধুনিকায়ন ও যুগোপযোগী করার লক্ষে সারা দেশের সব ফাজিল ডিগ্রি, কামিল এম এ মাদরাসার সমন্বয়ে ২০১৩ সালে ঢাকা মোহাম্মদপুর বসিলায় ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বর্তমানে ৫৪টি মাদরাসায় অনার্স কোর্স চালু আছে। জাতীয় সংসদে কওমি মাদরাসার দাওরায়ে হাদিসকে এম এ সমমান ডিগ্রি দিয়ে সনদ প্রদান করে আইন পাস করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার। 

এছাড়াও সারা দেশে ১,০১০টি দারুল আরকাম ইবতেদায়ি মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করা, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সৌন্দর্য বৃদ্ধিকরণ ও সম্প্রসারণ, পবিত্র আল কোরআন ডিজিটালাইজেশন, পবিত্র হজ ব্যবস্থাপনাকে আধুনিকায়ন রেকর্ড সংখ্যক হজযাত্রীর পবিত্র হজ পালন, পবিত্র মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববীর ইমাম ও খতিবের বাংলাদেশে আগমন, প্রায় ৮১ হাজার ১৪৭ জন আলেম ওলামার দীনি দাওয়াত ভিত্তিক কর্মসংস্থানের সুবিধা, বিনামূল্যে ২১ লাখ ৬১ হাজার ৮৪১ কপি পবিত্র কোরআনুল কারিম বিতরণ, ২ লাখ ১২ হাজার ইমামকে ইসলামী বুনিয়াদি শিক্ষার প্রশিক্ষণ প্রদান, মসজিদে জুমার প্রাক মুতবার মাধ্যমে আলেম ওলামাদের দ্বারা জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসী ও সামাজিক সমস্যা সমাধানে জনসচেতনতা সৃষ্টি, আন্তর্জাতিক হিফজ কিরাত ও তাফসির প্রতিযোগিতায় সাফল্য, ইসলামিক ফাউন্ডেশন হালাল ডায়াগনস্টিক ল্যাবরেটরি স্থাপন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের চারতলা বিশিষ্ট কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি ভবন স্থাপন, ৩১ শয্যাবিশিষ্ট ঝালকাঠি ইসলামিক মিশন হাসপাতাল নির্মাণ, ইমাম-মুয়াজ্জিন কল্যাণ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করা, ইসলামিক মিশনের মাধ্যমে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ বিতরণ, দেশের ৬,১০০টি মসজিদে পাঠাগার স্থাপন, জাকাতের মাধ্যমে গরির-দুঃখীদের স্বাবলম্বিতা অর্জন, ১৮টি নতুন ইসলামিক মিশন কেন্দ্র স্থাপন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনে পেনশন চালুকরণ, এক হাজার বেসরকারি মাদরাসায় একাডেমিক ভবন নির্মাণ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কার্যক্রমকে ডিজিটালে রূপান্তর, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের কাছে বাংলাদেশের আলেম উলামাদের ভূমিকার প্রশংসা, মসজিদ ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান উন্নয়নের জন্য আর্থিক অনুদান, চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদের উন্নয়ন কাজ করা, চট্টগ্রাম জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদ কমপ্লেক্সকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অনুকূলে ন্যস্ত করা, পবিত্র রমজান মাসে মসজিদে মসজিদে ব্যাপক কোরআন শিক্ষা প্রদান ও আরবি ভাষা শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ, করোনা মহামারীতে ইমাম, মুয়াজ্জিনদের ঈদ সম্মানী প্রদান করাসহ অনেক খিদমতই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রূপ দিয়েছেন। 

মহান আল্লাহর কাছে সমগ্র দেশবাসীর প্রার্থনা, এদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মতো একজন ধর্মপরায়ণ, নামাজি, সাহসী, মানবিক ও সুশিক্ষিত প্রধানমন্ত্রী আছেন বলেই দেশে আজকে ইসলামের প্রচার প্রসার ও সব ধর্মীয় কর্মকাণ্ড চলমান আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্থতা ও নেক হায়াতের জন্য মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করি। 

লেখক : খতিব, মনিপুর বাইতুল আশরাফ (মাইকওয়ালা) জামে মসজিদ মিরপুর, ঢাকা।