• রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৮

  • || ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

সাভার থেকে শিশুকে অপহরণ করে রিকশাচালক, উদ্ধার সিরাজগঞ্জে

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৫ অক্টোবর ২০২১  

সাভারের আশুলিয়া হতে তিন বছরের শিশুকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবির ঘটনায় দুই দিন পর সিরাজগঞ্জ থেকে অপহৃত শিশু আফিয়াকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৪। এ সময় অপহরণকারী চক্রের হোতা রানা আহমেদ বাকিকে (৩৪) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার অপহরণকারী রানা আহমেদ পাবনা জেলার সদর থানায় ভাউডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা। তিনি গত দুই বছর ধরে সাভার উপজেলার পল্লিবিদ্যুৎ কবরস্থান রোড এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে রিকশা চালাতেন। পাশাপাশি মাঝে মাঝে স্থানীয় একটি কয়েল ফ্যাক্টরিতেও কাজ করতেন তিনি।

জানা যায়, শিশু আফিয়ার বাবা-মা দুজনেই গার্মেন্টসে কাজ করায় প্রতিবেশী নানির কাছে থাকত সে। তার পাশের কক্ষেই রানা ভাড়া থাকায় শিশুটি তাকে মামা বলো ডাকত।

এই সুযোগে গত বৃহস্পতিবার দুপুর একটার দিকে তিন বছরের শিশু আফিয়াকে অপহরণ করে রানা। এদিন অপহরণকারী শিশুটির পরিবারের কাছে ফোন করে চার লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন। এ ছাড়া টাকা না দিলে অপহৃত শিশুটিকে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করেন।

র‌্যাব-৪ জানায়, নির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-৪ এর একটি গোয়েন্দা দল অপহরণকারীর অবস্থান শনাক্তে ছায়া তদন্ত শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রথমে অপহরণকারীর নিজ জেলা পাবনা এবং শ্বশুরবাড়ি নাটোর এর বড়াইগ্রাম থানায় অভিযান পরিচালনা করে তথ্য সংগ্রহ করে।

পরে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে খবর পেরে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহাজাদপুর থানার দুর্গম চরাঞ্চলে অবস্থান পরিচালনা করা হয়। দুই দিন ব্যাপী অভিযান চালিয়ে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানাধীন ১০ নম্বর কৈজুরি ইউপির ০৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাঁধ সংলগ্ন সুইসগেট এলাকার একটি বাসা থেকে অপহৃত শিশু আফিয়াকে উদ্ধার এবং অপহরণকারী মো. রানা আহমেদ বাকিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, অপহরণকারী মো. রানা আহমেদ বাকি শিশু আফিয়া’কে মাঝে মাঝে তাকে বিভিন্ন শিশুখাদ্য চকলেট, চিপস ও খেলনা কিনে দিয়ে সখ্য গড়ে তোলেন। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ০৪ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায়ের লক্ষ্যে তিনি শিশুটিকে অপহরণের পরিকল্পনা করেন।

পরে বৃহস্পতিবার দুপুর একটার দিকে শিশুটিকে অপহরণ করার উদ্দেশ্যে প্রথমে তাকে একটি চিপস কিনে দিয়ে পল্লিবিদ্যুৎ হতে রিকশাযোগে বলিভদ্র বজারে যায়। সেখান থেকে শিশুটিকে গেঞ্জি ও সেন্ডেল কিনে দেয়। পরবর্তীতে বলিভদ্র হতে বাস যোগে চন্দ্রা যায়। চন্দ্রা বাসস্ট্যান্ড হতে বাসযোগে আনুমানিক ০৩.০০ ঘটিকার সময় সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানার ১০ নম্বর কৈজুরি ইউপি ০৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাঁধ সংলগ্ন সুইসগেট এলাকায় তার বন্ধু রবিউল এর বাড়িতে পৌঁছে। 

জানতে চাইলে র‌্যাব-৪ নবীনগর ক্যাম্পের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খাঁন বলেন, গ্রেপ্তার অপহরণকারীকে আশুলিয়া থানায় হস্তান্তর করে মামলা করা হয়েছে।

এ ছাড়া ভবিষ্যতেও এইরূপ শিশু অপহরণকারী চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোরালো অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান।