• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

ব্যস্ত সড়কে সুয়ারেজের পানি, ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৬ মে ২০২২  

ঢাকার কেরানীগঞ্জে গুলিস্তান-নবাবগঞ্জ রোডের রামেরকান্দা এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে সুয়ারেজ ব্যবস্থা না থাকার কারণে শৌচাগারের পানিসহ বাসা বাড়ির দৈনন্দিন কাজে ব্যবহৃত ময়লা পানি সড়কে এসে জমা হচ্ছে। এতে প্রতিদিন চরম ভোগান্তিতে পোহাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দা, দোকানদার ছাড়াও এ সড়ক দিয়ে চলাচলকারী হাজারো মানুষ। স্থানীয়রা ময়লা পানিতে সাবধানে চলাচল করলেও অধিকাংশ মানুষই জানে না এগুলো শৌচাগার বা বাথরুমের পানি। তাই নিজের অজান্তেই নোংরা পানিতে নষ্ট হচ্ছে জামাকাপড়সহ প্রিয় যানবাহন।

স্থানীয় বাসিন্দা সাজিয়া আফরিন দিনা বলেন, তিতাস গ্যাসের খামখেয়ালিতে আমরা দীর্ঘদিন ধরে ময়লা পানিতে হাবুডুবু খাচ্ছি। আমরা কষ্ট করে থাকলেও ভাড়াটিয়া ও দোকানদাররা বাড়ি ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। এতে আমাদের আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি বাড়ির শিশু ও বৃদ্ধরা অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। তিতাস গ্যাস ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে বারবার যেয়েও কোনোপ্রতিকার পাচ্ছি না। আমরা দ্রুত এর সমাধান চাই।

রামেরকান্দা কবরস্থান জামে মসজিদের মুসল্লি ও স্থানীয় ব্যবসায়ী মো, শাহীন জানান, এই রাস্তার পাশেই তার দোকান। নোংরা পানির কারণে ক্রেতা কমে গেছে, এতে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। তাছাড়া রাস্তা দিয়ে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি শতশত মুসল্লিও যাতায়াত করেন। চলন্ত গাড়ির চাকায় পানি ছিটে কাপড় নাপাক হওয়ায় তারা মসজিদে ঠিক মতো নামাজ আদায় করতে পারছেন না। জরুরি ভিত্তিতে ড্রেনেজ ব্যবস্থা চালুরে জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

শাক্তা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হাজী হাবিবুর রহমান হাবিব এই প্রতিবেদককে বলেন, বিষয়টি আমি আপনার কাছেই শুনলাম। এটা হয়ে থাকলে আগামী বৃহস্পতিবারের (২৬ মে) মধ্যেই আমি কাজটা শুরু করব। আমার এলাকায় কোনো প্রকার ভোগান্তি থাকবে না ইনশাআল্লাহ। এ ব্যাপারে তিতাস গ্যাসের জিনজিরা অফিসে বারবার যোগাযোগ করেও দায়িত্বশীল কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।