• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

খোঁজ মেলেনি সেই ঘাতক বাসচালকের, মামলার বাদী পুলিশ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২২  

সাভারে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তাসহ চারজনের মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক বাসটির চালক বা সহকারী কারো কোনো খোঁজ পায়নি পুলিশ। ঘাতক বাসটির রেজিস্ট্রেশন নম্বর পাওয়া গেলেও এখনো মালিকপক্ষের কোনো তথ্য মেলেনি বলে জানিয়েছে সাভার হাইওয়ে থানা পুলিশ।

রবিবার (৫ জুন) রাত ১১টার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সাভার হাইওয়ে থানার ওসি আতিকুর রহমান। তিনি আরো বলেন, পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি সাপেক্ষে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশগুলো হস্তান্তর করা হয়।

তিনি বলেন, দুটি বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষের ঘটনায় ঘাতক বাসটির মালিকপক্ষ বা চালক-সহকারীকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় সাভার হাইওয়ে থানার এএসআই ফজলুল হক বাদী হয়ে অজ্ঞাত চালককে আসামি করে মামলা দায়ের করছেন। মামলার তদন্ত করবেন সাভার হাইওয়ে থানার এসআই মোস্তফা হোসেন।

এদিকে রবিবার রাত পৌনে ১০টায় সাভার মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন সাভার মডেল থানার ডিউটি অফিসার এস আই জাহিদুল ইসলাম জিকু।

বাদী এএসআই ফজলুল হক বলেন, বাসটি সেইফ লাইন পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব ১৪-৫৮৭৮)। বাসটি কোন রুটে চলে তা এখনো জানা যায়নি। দুর্ঘটনার পর ঘাতক বাসটির চালকসহ বাসের কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। প্রাথমিকভাবে ধারণা বাসটিতে কোনো যাত্রী ছিল না। বাসটির অজ্ঞাত চালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিআরটিএতে গাড়ির নম্বরের মাধ্যমে গাড়ির চালকের তথ্য সংগ্রহ করার চেষ্টা চলছে। দুর্ঘটনার শিকার গরুর ট্রাকটির চালক ও সহকারীদেরও এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে উপস্থিত থাকা পাইকাররা তারা গরু নিয়ে গেছে। তাদের মতে আহত ট্রাকের চালক ও হেলপার আহত অবস্থায় হাসপাতালে গেছে। তবে কোন হাসপাতালে গেছে তারা জানাতে পারেননি। এছাড়া পরমাণু শক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এখনো কোনো অভিযোগপত্র পাওয়া যায়নি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সাভার হাইওয়ে থানার এস আই মোস্তফা হোসেন বলেন, বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের ২ বিজ্ঞানী, ১ প্রকৌশলী ও ওই প্রতিষ্ঠানের বাসের ড্রাইভার এ ঘটনায় মারা গেলে তাদের লাশ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। অজ্ঞাত চালকের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করলেও তদন্তে আরো জড়িত কাউকে খুঁজে পেলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে।

উল্লেখ্য, রবিবার সকাল ৯টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বলিয়ারপুরে এ দুর্ঘটনায় ৪ জন নিহত হন ও আহত হন প্রায় ২০ জন। ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, বলিয়ারপুর স্ট্যান্ডের নিকটে ঢাকাগামী সেইফলাইন ব্যানারের একটি বাস সড়কের বাম পাশে পার্কিং করা একটি বাসকে ধাক্কা দেয়। এরপরে বাসটি তার ডানপাশে ঢাকামুখী গরু বোঝাই ট্রাককে ধাক্কা দিয়ে সড়ক বিভাজকের ওপর উঠিয়ে দেয়, এবং পরে সেই বাসটি সাভারমুখী লেনে আড়াআড়িভাবে ঢুকে পড়ে সাভারমুখী পরমাণু শক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের স্টাফ বাসটিকে দ্রুতগতিতে ধাক্কা দেয়।