• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

স্ত্রীকে হত্যার পর লাশ ভাসাল নদীতে

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২২  

স্ত্রীকে হত্যা পর লাশ ধলেশ্বরী নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার অভিযোগে স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার আবুল হোসেন স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করায় বুধবার (২২ জুন) সকাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল নদীতে মরদেহ উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ঘিওর উপজেলার ঘিওর সদর ইউনিয়নের কুস্তা গ্রামে। স্বামীর হাতে খুন হওয়া মাজেদা বেগম (৩০) দুই সন্তানের জননী। নিহতের মা বাদী হয়ে মঙ্গলবার (২১ জুন) ঘাতক আবুল হোসেনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মাজেদা উপজেলার সিংজুরী ইউনিয়নের বালিয়াবাঁধা গ্রামের মৃত ছবেদ আলীর মেয়ে। ১০ বছর আগে মাজেদার বিয়ে হয়েছিল রাজবাড়ীতে। বছর তিনেক আগে স্বামী নুরুল ইসলামের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়। সেখানে তার দুই সন্তান রয়েছে। এরপর মাজেদা বাবার বাড়ি থেকে সাভারের একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন।

গত সাত মাস আগে আবুল হোসেনের সঙ্গে গোপনে বিয়ে হয় মাজেদার। বিয়ের পর থেকেই মাজেদা বেগমের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না আবুলের। প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ লাগতো। বেশ কয়েকদিন ধরে মাজেদার পরিবারের কাছে টাকা দাবি করে আসছিল আবুল। অন্যথায় তাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হচ্ছিল।

শনিবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন মাজেদা। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। এ ঘটনায় আসামি আবুল হোসেনের ব্যাপারে মাজেদার পরিবারের সন্দেহ হয়। পুলিশের কাছে মাজেদের মা ঘটনাটি জানালে স্বামী আবুল হোসেনকে মঙ্গলবার দুপুরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সে স্ত্রীকে নদীতে ডুবিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করে।