• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী দিনে বিয়ে করবেন হাসান-তমা

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২২  

শিল্পকলা একাডেমির জনসংযোগ কর্মকর্তা হাসান মাহমুদের বাড়ি ঢাকার সাভারে। অন্যদিকে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ অফিসার সারজিনা হোসাঈন তৃমার বাড়ি গোপালগঞ্জে। ২০১৪ সালের ৭ ডিসেম্বর হাসান-তৃমার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ওই বছরের ২৬ নভেম্বর পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজের উদ্বোধন করা হয়।

চার বছর পর ২০১৮ সালে তারা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। তবে সাভার থেকে গোপালগঞ্জ যেতে বাধা হয়ে দাঁড়ায় পদ্মা নদী। সেই পদ্মায় নির্মিত হয়েছে দেশীয় অর্থায়নের মেগা প্রকল্প পদ্মা বহুমুখী সেতু। আগামী ২৫ জুন সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে পদ্মা সেতু। ২৫ জুন বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন হাসান ও তৃমা। সেতু পাড়ি দিয়েই কনে নিয়ে আসবেন এমন পণ করেই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন হাসান মাহমুদ।

এ বিষয়ে হাসান মাহমুদ বলেন, দেশপ্রেম থেকেই পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন বিয়ের তারিখ ঠিক করেছি। এটার নানা কারণ আছে। দেশপ্রেম না থাকলে চার বছর আগে এমন সিদ্ধান্ত নিতাম না। আরও একটা বড় কারণ আছে, সেটা হলো সাভার থেকে গোপালগঞ্জ যেতে হলে ফেরি পার হতে হয়। এতে নানা ধরনের ঝামেলা তৈরি হয়। সেজন্য আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি বিয়ে করলে সেতু উদ্বোধনের দিনই করবো। 

সেতু পাড়ি দিয়ে নতুন বউকে আমার বাসায় নিয়ে আসবো। তাছাড়া দুজনে পড়াশোনা শেষ করলাম, এখন চাকরি করি। একদিকে পদ্মা সেতুর কাজও শেষ হলো, অন্যদিকে দুজনে প্রতিষ্ঠিতও হলাম। ২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর পদ্মা সেতুর সবশেষ স্প্যান বসানো হয়। সেই থেকেই হাসান-তৃমা জুটির চোখে-মুখে বয়ে যায় খুশির ঝিলিক। দুজনই অপেক্ষায় ছিলেন এক ছাদের নিচে বসবাসের দিনক্ষণ ঠিক করার বিষয়ে। গত ২৪ মে আসে বহু কাঙ্ক্ষিত ঘোষণা- ‘২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন’। 

হাসান-তৃমার কাছে এ ঘোষণা তাদের বিয়ের তারিখ হয়ে আসে। একদিকে পদ্মা সেতু উদ্বোধনে চলে জোর প্রস্তুতি। হাসান-তৃমার বিয়ে ঘিরেও এগিয়ে চলে সব আয়োজন।

১৪ জুন সন্ধ্যায় প্রথমবারের মতো পুরো পদ্মা সেতু আলোকিত হয়। ১৭ জুন সন্ধ্যায় হাসানের গায়ে হলুদ হয়। তৃমার গায়ে হলুদ ২৪ জুন ঢাকায়। বিয়ে ২৫ জুন। বিবাহোত্তর সংবর্ধনা ১ জুলাই।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিসংখ্যানে স্নাতক করেছেন হাসান। স্নাতকোত্তর করছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। বর্তমানে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। অন্যদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর শেষ করে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ অফিসার হিসেবে কর্মরত তৃমা।