• বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ২ ১৪২৯

  • || ২০ মুহররম ১৪৪৪

শুক্রবার জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার দেবেন প্রধানমন্ত্রী

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৪ আগস্ট ২০২২  

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কারে মনোনীতদের শুক্রবার পুরস্কার প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০২২ সালের পুরস্কারের জন্য ৭টি ক্যাটাগরিতে মোট ৯ জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব ও ২টি প্রতিষ্ঠানকে মনোনীত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘শুক্রবার সকাল ৯টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করবেন। পুরস্কার হিসেবে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা, ক্রেস্ট ও সম্মাননা সনদ দেওয়া হবে।’

তিনি বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য দিয়েছেন। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে শহীদ শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের নামও ঘোষণা করেন।

পুরস্কার প্রাপ্তরা হলেন- হারুনুর রশীদ (আজীবন সম্মাননা), লিটন কুমার দাস (ক্রীড়াবিদ), আব্দুল্লাহ্ হেল বাকি (ক্রীড়াবিদ), মোল্লা সাবিরা সুলতানা (ক্রীড়াবিদ), দিয়া সিদ্দিকী (উদীয়মান খেলোয়াড়), মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম (উদীয়মান খেলোয়াড়), মো. সাইদুর রহমান প্যাটেল ( ক্রীড়া সংগঠক), নাজমা শামীম (ক্রীড়া সংগঠক), বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (ক্রীড়া সংস্থা), গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (ক্রীড়া পৃষ্ঠপোষক) ও কাশীনাথ বসাক (ক্রীড়া সাংবাদিক)।


সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল ছিলেন একজন স্বাপ্নিক তরুণ। বাংলাদেশের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশে প্রচলিত সনাতনী ক্রীড়া-উন্নয়ন ধারণা থেকে বেরিয়ে এসে তিনি বাংলাদেশের আধুনিক ও আন্তর্জাতিকমানের ক্রীড়া প্রবর্তনে প্রয়াসী হয়েছিলেন। অসাধারণ সাংগঠনিক দক্ষতায় তিনি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন আবাহনী ক্রীড়া চক্র। ব্যক্তিগত প্রজ্ঞা ও নিজস্ব ক্রীড়া ভাবনায় এদেশে আধুনিক ফুটবলের পথিকৃৎ তিনি। ক্রীড়ানুরাগী, সংস্কৃতিমনা, তারুণ্যদীপ্ত শেখ কামাল মহান মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখ সমরে অংশগ্রহণ করেছেন। জাতির এ কীর্তিমান তরুণ শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের অবদানকে স্মরণীয় এবং তাঁর প্রতি গভীর শ্রদ্ধার নিদর্শনস্বরুপ ক্রীড়ার বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা ‘শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার’ প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ক্রীড়াঙ্গনের বিভিন্ন শাখায় অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ নীতিমালার আলোকে সংশ্লিষ্ট কমিটি কর্তৃক পুঙ্খনাপুঙ্খরুপে যাচাইবাছাইপূর্বক আমরা উপরে উল্লেখিত ৭টি ক্যাটাগরিতে মোট ৯ জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব ও ২টি প্রতিষ্ঠানকে ‘শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার’ ২০২২ প্রদান করছি। আমি সম্মানজনক এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত সকলকে অগ্রীম শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমি বিশ্বাস করি এ পুরস্কার ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট সকলকে ভবিষ্যতে ক্রীড়াক্ষেত্রে আরো ভালো কাজ করতে উৎসাহ যোগাবে।’


সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাহ উদ্দিন স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। এ সময়ে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (ক্রীড়া) মোঃ নজরুল ইসলাম, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব পরিমল সিংহসহ যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।