• সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৯

  • || ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রবেশপথে ভোগান্তি!

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২  

সাভার উপজেলার লক্ষ লক্ষ মানুষের সরকারি স্বাস্থ্য সেবাদানকারী সরকারি প্রতিষ্ঠান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। দূরদূরান্ত থেকে সেবা নিতে প্রতিদিন শত শত রোগী ও তাদের স্বজনরা আসেন এখানে। কিন্তু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রবেশ পথের রাস্তায় বিভিন্ন ভ্রাম্যমান অস্থায়ী দোকানপাট গড়ে ওঠায় সেবা নিতে আসা মানুষকে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সরেজমিন সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, ঝালমুড়ি চানাচুর বিক্রেতা, ভ্যানে করে হরেক মাল বিক্রেতা, শরবত বিক্রেতা, কাপড় বিক্রেতা সহ যে যেভাবে পেরেছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রবেশ পথ থেকে শুরু করে সাভার মডেল থানার সংযোগ রাস্তা পর্যন্ত দখল করে ব্যবসা করছে।

এছাড়া, একের পর এক অটো রিক্সা এসে গেটের সামনে জটলা করে অবস্থান করছে। ফলে এখানে সেবা নিতে আসা অসুস্থ রোগী এবং তাদের স্বজনরা ভোগান্তিতে পড়ছেন। সার্বক্ষণিক এক জটলার মাঝ দিয়ে মুমূর্ষু রোগীদের আনার সময় ভোগান্তি বেশী হয়।

পাশাপাশি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রবেশপথ থেকে থানার সংযোগকারী রাস্তা পর্যন্ত সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য যে গাছ লাগানো হয়েছিল, সেটাও নষ্ট হচ্ছে পসরা সাজিয়ে বসা এসব ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীদের জন্য। তবে সবচেয়ে ভয়ংকর যে বিষয়টি এই প্রতিবেদকের নজরে এসেছে তাহলো, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনের রাস্তায় বিভিন্ন বাসাবাড়ির বর্জ্য ময়লা ফেলে স্তুপ করে রাখা হচ্ছে। ফলে নানাবিধ রোগ ছড়াচ্ছে প্রতিনিয়ত এই ময়লা থেকে। আর তাতে এখানে স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা আক্রান্ত হচ্ছেন বর্জ্য থেকে বাতাসে ভেসে বেড়ানো জীবাণুর দ্বারা।

এব্যাপারে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ সায়েমুল হুদা জানান, আমাদের জনবল খুবই কম, তাই আমাদের পক্ষে সম্ভব হয় না রাস্তার এই ভিড় কমানোর কাজ করাটা। আমরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়কে জানিয়েছি ব্যাপারটা, পাশাপাশি সাভার মডেল থানার ওসি সাহেবকেও জানিয়েছি। এসংক্রান্ত চিঠি আজ পাঠিয়ে দেয়া হবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে। আশাকরা যায়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

এব্যাপারে, সাভার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাজহারুল ইসলাম জানান, এবিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার সাথে কথা হয়েছে। আমাদের নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে এসব দোকানপাট সরিয়ে রোগীদের স্বাচ্ছন্দ্যে নিরবচ্ছিন্ন প্রবেশের ব্যবস্থা করবো। আর যারা এভাবে বাসাবাড়ির ময়লা রাস্তায় ফেলছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।