• সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৯

  • || ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

মানিকগঞ্জে ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’ দেখতে ভিড় করছে মানুষ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০২২  

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে প্রিয় দলের পতাকার রঙে বাড়ি রাঙিয়ে সাড়া ফেলে দিয়েছেন রুবায়েত রাসেল নামের এক আর্জেন্টাইন ভক্ত। বাড়িটি দেখতে প্রতিদিন ভিড় করছেন অসংখ্য মানুষ। রুবায়েত রাসেলের বাড়ি উপজেলার গালা ইউনিয়নের কালোই গ্রামে। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে আর্জেন্টিনার পতাকার আদলে নীল-সাদা রঙে মোড়ানো হয়েছে বাড়িটি। ইতোমধ্যে বাড়িটি এলাকায় পরিচিতি পেয়েছে ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’ হিসেবে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাড়ির সীমানা প্রাচীর ও একটি চারচালা ঘর আর্জেন্টিনা পতাকার আদলে রঙ করা হয়েছে। পাশেই উড়ছে দেশটির পতাকা। তবে সবার ওপরে রয়েছে বাংলাদেশের পতাকা। বাড়ির সামনে জড়ো হয়েছেন বেশ কয়েকজন আর্জেন্টাইন ভক্ত। এদের কেউ বাড়িটির ছবি তুলছেন। কেউবা তুলছেন সেলফি।

ফেসবুকে ছবি দেখে বাবার কাছে বাড়িটি দেখার বায়না ধরেছিল প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী মুনতাসির হাসনাত মুফিদ। বাবা হরিরামপুরের আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ ছেলের সেই আবদার পূরণ করতে এখানে এসেছেন। বাপ-ছেলেকে দেখা গেলো বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলতে।

বাড়িটি দেখতে আসা কয়েকজন আর্জেন্টিনা সমর্থক জানান, রুবায়েত রাসেলের বাড়িটি দেখে ভক্তদের মাঝে উৎসাহ উদ্দীপনা বেড়েছে। সবাই মুখিয়ে আছে খেলা দেখার জন্য। গ্রামের সব আর্জেন্টিনা ভক্ত এক সঙ্গে বসে খেলা দেখার সুযোগ দিতে রুবায়েত বাড়িতে বড় পর্দারও আয়োজন করা হয়েছে।

রুবায়েত রাসেল জানান, আর্জেন্টিনা আমার প্রিয় দল। প্রিয় দল ও মেসিকে ভালোবাসি। এ ভালোবাসা থেকেই বাড়িটি আমি আর্জেন্টিনার পতাকার রঙে রাঙিয়েছি। এ ভালোবাসা প্রকাশ করতে পেরে আমি খুশি।

তিনি বলেন, বাড়িটি রাঙানোর ফলে আর্জেন্টিনা ভক্তরা খুশি হয়েছে। তারা সবাই ধন্যবাদ জানাচ্ছেন। তবে উল্টো ব্রাজিলসহ অন্য দলের সমর্থকরা। তারা আমাকে নানাভাবে কটাক্ষ করছেন। মেসির এটা শেষ বিশ্বকাপ। তাই আমাদের প্রত্যাশা এবার বিশ্বকাপের ট্রফি নিয়েই ঘরে ফিরবেন তিনি।

হরিরামপুর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সবুজ জানান, বিশ্বকাপকে সামনে রেখে জেলার হরিরামপুরেও উন্মাদনা শুরু হয়েছে। অনেকে বাড়ি রাঙাচ্ছেন। প্রিয় দলের বড় পতাকা টাঙ্গাচ্ছেন। এসবই তাদের ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। তবে এখানে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সমর্থকই বেশি।