• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

বদলে গেছে চার ইউনিয়নবাসীর জীবনযাত্রা

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০১৯  

বংশী নদীবেষ্টিত ধামরাই উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলের কুল্লা, রোয়াইল, সুয়াপুর ও নান্নার ইউনিয়নবাসীর এক সময় মূল পেশা ছিল মাছ ধরা ও কৃষিকাজ করা এখন সেই চিত্র বদলে গেছে কেউ দোকান, কেউ গাড়িভাড়া দেওয়া, জমি কেনা বেচাসহ বিভিন্ন ব্যবসায় নেমেছেন

বাড়িগাঁও গ্রামের আব্দুল খালেক ও মাকুলিয়া গ্রামের আলী হোসেন ছিলেন বেকার এখন তারা 'অটো গাড়ি' ব্যবসার আয়ে বেশ ভালো আছেন সপরিবারে এ ভাবে বেকারত্ব ঘুচিয়ে স্বাবলম্বী হতে চলেছে কুল্লা, রোয়াইল, সুয়াপুর ও নান্নার ইউনিয়নবাসী

ধামরাই উপজেলা প্রকৌশলী অফিস সূত্রে জানা গেছে, এলজিইডি ও বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে প্রায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে ধামরাইয়ের ঢুলিভিটা হয়ে বাড়িগাঁও থেকে ফোর্ডনগর পর্যন্ত চার কিলোমিটার নতুন সড়ক ও তিনটি সেতু নির্মাণের ফলে কুল্লা, রোয়াইল, সুয়াপুর ও নান্নার ইউনিয়নসহ আশপাশের কয়েক লাখ মানুষের জীবনযাত্রা বদলে গেছে এ সড়কের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আরও দুটি সংযোগ সড়ক, যা সাভার বাজারে গিয়ে মিশেছে

কুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন জানান, ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক দিয়ে ধামরাই থেকে সাভার যেতে প্রায় এক ঘণ্টা সময় লেগে যেত সম্প্রতি ঢুলিভিটা-ফোর্ডনগর সড়কটি নির্মাণের ফলে এখন ১০ থেকে ১২ মিনিটেই সাভার বাজারে পৌঁছানো যায় সাভার ও ঢাকায় যাতায়াতের জন্য অনেকে এখন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বাইপাস হিসেবে এ নতুন সড়ক ব্যবহার করছেন এ সড়ক নির্মাণের ফলে দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছতে পারছেন ধামরাইয়ের চার ইউনিয়নের কয়েক লাখ মানুষ এ ছাড়া জমির দাম চার-পাঁচগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং পর্যটকদের আনাগোনাসহ অবকাঠামোগত বিভিন্ন উন্নয়ন ঘটছে গড়ে উঠেছে কয়েকটি আবাসন প্রকল্পও এতে স্থানীয় কৃষক থেকে শুরু করে সব শ্রেণির মানুষের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ লাঘব হয়েছে

কাইজারকুণ্ড গ্রামের সবজি ব্যবসায়ী আরিফুল ইসলাম জানান, সবজি বিক্রির জন্য আগে ২৫ কিলোমিটার ঘুরে সাভার যেতে হতো সেতু ও সড়ক নির্মাণের ফলে তার গ্রাম থেকে মাত্র ৫ মিনিটে সাভার বাজারে যেতে পারেন

ধামরাই উপজেলা প্রকৌশলী ইউসুফ হোসেন জানান, সড়ক ও সেতু না থাকায় কুল্লা, রোয়াইল, সুয়াপুর ও নান্নার ইউনিয়নবাসীর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল বছরের ১২ মাসই তাদের নৌপথে কিংবা হেঁটে একস্থান থেকে অন্যস্থানে চলাচল করতে হতো এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবির পর নতুন সড়ক ও তিনটি সেতু নির্মিত হওয়ায় গাড়ি চলাচল শুরু করেছে এতে ওইসব ইউনিয়নের কয়েক লাখ মানুষের দুর্ভোগ লাঘব হয়েছে

ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম বলেন, সেতু ও সড়ক নির্মাণের ফলে চার ইউনিয়নবাসীর জীবনযাত্রায় পরিবর্তন এসেছে কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসল সহজেই সাভার ঢাকায় বিক্রি করতে পারছেন