• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

হাঁটুভাঙ্গা সেতুতে টোল আদায় বন্ধের দাবি

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০১৯  

টাঙ্গাইলের গোড়াই-সখিপুর সড়কের মির্জাপুর উপজেলার বংশাই নদীর হাঁটুভাঙ্গা এলাকায় হাঁটুভাঙ্গা সেতুতে দীর্ঘদিন ধরে চলছে টোল আদায় নির্মাণ ব্যয়ের চেয়ে বেশি টাকা আদায় হলেও বন্ধ হচ্ছে না এই টোল আদায়

২০০১ সাল থেকে ২০১৮-১৯ অর্থবছর পর্যন্ত সরকার ওই সেতু ইজারা দিয়ে ৯ কোটি ৪৮ লাখ ২০ হাজার ৭৫০ টাকা রাজস্ব আদায় করেছে সড়কটি দিয়ে চলাচলরত যানবাহনের চালক, হেলপার ও স্থানীয় লোকজন টোল আদায় বন্ধের দাবি জানিয়ে আসছে

জানা যায়, উপজেলার পাহাড়ি অঞ্চলের আজগানা, লতিফপুর, বাঁশতৈল ও তরফপুর ইউনিয়ন এবং ময়মনসিংহ, শেরপুর, জামালপুর ও নেত্রকোনার কয়েক লাখ মানুষকে ঝুঁকি নিয়ে ফেরি ও ছোট ছোট ডিঙ্গি নৌকায় করে হাঁটুভাঙ্গার বংশাই নদী পার হতে হতো ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে আওয়ামী লীগ সরকার স্থানীয় লোকজনের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে বংশাই নদীর ওই স্থানে একটি সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয় প্রায় সাড়ে ছয় কোটি টাকা ব্যয়ে সেতুটির নির্মাণকাজ পায় ঢাকার মনিকো এন্টারপ্রাইজ

বাংলাদেশ ও জার্মান সরকারের যৌথ উদ্যোগে ও এলজিইডির তত্ত্বাবধানে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ২০০১ সালে সেতুটির নির্মাণকাজ শেষ করে সেতুটি চালু হওয়ার পর মির্জাপুরের পাহাড়ি অঞ্চল ছাড়াও দেশের উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলার মানুষের গোড়াই-সখিপুর সড়ক হয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত বেড়ে যায় বর্তমানে ওই সড়ক ব্যস্ততম সড়কে রূপ নিয়েছে প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলাচল করছে এই সড়ক দিয়ে সেতুটি নির্মাণের পর থেকেই সরকার সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের মাধ্যমে টোল আদায়ের জন্য ইজারা পদ্ধতি চালু করে ২০০২-০৩ অর্থবছরে টোল আদায়ে সেতুটি ২৮ লাখ ৩২ হাজার ১৫০ টাকায় প্রথম ইজারা নেন আজাগানা ইউনিয়নের হাঁটুভাঙ্গা এলাকার ঠিকাদার শামসুল আলম

সর্বশেষ গত বছরের ৬ মে থেকে ৭৮৫ দিনের জন্য এক কোটি ৬১ লাখ ৬০ হাজার টাকায় ওই সেতু ইজারা নিয়ে টোল আদায় করছেন মো. আতিকুল ইসলাম শিকদার নামে এক ব্যক্তি

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের টাঙ্গাইলের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আমিনুল এহসান জানান, সরকার সেতুর টোল আদায়কে দেশের আয়ের পথ হিসেবে নিয়েছে তা ছাড়া যেসব সেতু ইজারা দেওয়া হয়েছে ওই সব সেতুর ইজারা বন্ধ করতে সরকারের পরিকল্পনা নেই

তবে নতুন অর্থমন্ত্রী নতুন প্রজ্ঞাপন জারি করলে সেই মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান