• রোববার ২১ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৬

আগুনে পুড়ে বৃদ্ধা ও তালতলীতে শিশুর মৃত্যু

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৫ জুন ২০২৪  

মানিকগঞ্জ সদর ও বরগুনার তালতলীতে বসতবাড়িতে লাগা আগুনে সবুরী বেগম (৭০) ও জুনায়েদ (৬) নামের দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জুন) বেলা পৌনে ১২টার দিকে সদর উপজেলার দিঘী ইউনিয়নের ছোট ভাটবাউর এলাকায় ও সোমবার (৩ জুন) রাত ৮টার দিকে তালতলী উপজেলার নিশান বাড়িয়া ইউনিয়নের বড় অঙ্কুজান পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, সবুরী বেগম উপজেলার ছোট ভাটবাউর এলাকার মৃত নায়েব আলীর স্ত্রী। তিনি কয়েকদিন যাবত অসুস্থায় ভুগছিলেন। মানিকগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্য ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু আগুনের তেজ বেশি হওয়ায় অল্প সময়ের মধ্যেই টিনসেটের ঘর পুড়ে যায়।

তবে সবুরী বেগম অসুস্থ থাকায় ওই ঘরের ভেতরে আটকা পড়ে পুড়ে মারা যান। এরপর তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তদন্ত শেষে আগুনের কারণ ও ক্ষতির পরিমাণ বলা যাবে বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের ওই কর্মকর্তা।

মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিটন ঢালী জানান, নিহতের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা হয়েছে এবং মরদেহ সৎকারের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে নদগ ২০ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। এদিকে তালতলী প্রতিনিধি জানান, এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মো. জাবের (১৫) দগ্ধ হয়েছেন। তারা একই গ্রামের কালাম গাজীর ছেলে।

মঙ্গলবার তালতলী উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (ইউএনও) সিফাত আনোয়ার তুমপা বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সহায়তা করা হবে। জানা যায়, সোমবার রাত ৮টার দিকে কালাম গাজীর বসতঘরে আগুন লাগে। ঘরে জুনায়েদ ও জাবের দুই ভাই ঘুমিয়ে ছিল। আগুনের তাপে জাবের ঘর থেকে দগ্ধ অবস্থায় বের হলেও জুনায়েদ ঘুমে থাকায় বের হতে পারেনি। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা জুনায়েদের লাশ উদ্ধার করে।