• মঙ্গলবার   ১৬ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ৩১ ১৪২৯

  • || ১৮ মুহররম ১৪৪৪

আশুলিয়ায় দুই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

সাভার উপজেলার আশুলিয়ায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে এক গৃহবধূকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। নিহত গৃহবধূর নাম শম্পা আক্তার (২৮)। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী বিল্লাল হোসেন পলাতক। শনিবার রাতে আশুলিয়ার দুর্গাপুর উত্তরপাড়া এলাকার একটি ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

 

নিহত শম্পার গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সাদুল্যাপুর থানার সদর এলাকায়। তিনি তার স্বামী বিল্লাল হোসেনের সঙ্গে আশুলিয়ার দূর্গাপুর উত্তরপাড়া এলাকার সুলতান ফকিরের বাড়িতে ভাড়া থেকে স্থানীয় সাউর্দান গার্মেন্টসে পোশক শ্রমিক হিসেবে চাকরি করতেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত কয়েকদিন ধরে বিল্লাল হোসেন তার স্ত্রী শম্পা আক্তারকে যৌতুক হিসেবে বাবার বাড়ি থেকে কয়েক লাখ টাকা আনার জন্য চাপ দিচ্ছিলো। শম্পা যৌতুকের টাকা আনতে অস্বীকার করায় শনিবার সন্ধ্যায় দুজনার মধ্যে ঝগড়া ও কথা কাটাকাটি হয়। পরে তাকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায় পাষণ্ড স্বামী।

রাতেই বিষয়টি বুঝতে পেরে প্রতিবেশীরা ঘটনাটি আশুলিয়া থানায় জানান। খবর পেয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নিহতের মরদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে থানায় আসে।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মশিউর হোসেন নয়ন ভূইয়া জানান, ‘নিহত নারীর মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের স্বামী পলাতক থাকায় প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধে হত্যার করে স্বামী পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে হত্যাকারীকে আটকে অভিযান চালানো হচ্ছে।’

অন্যদিকে আশুলিয়ার জামগড়া বটতলা এলাকায় আরেক গৃহবধূ হাসনা আক্তারকে (২৩) শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে গেছে তার স্বামী রিকশাচালক নয়ন। রবিবার সকালে আশুলিয়া থানা পুলিশ নিহতের মরদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। নিহতের গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরে বলে জানিয়েছে পুলিশ।