• মঙ্গলবার   ২৪ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৯

  • || ২২ শাওয়াল ১৪৪৩

মেহেরপুরে হাড় কাঁপানো শীত

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮  

মেহেরপুর জেলায় গতকাল মঙ্গলবার রাত থেকে হাড় কাঁপানো শীত পড়তে শুরু করেছে। উত্তরের মৃদু হাওয়ায় বাড়িয়ে দিচ্ছে শীতের তীব্রতা। আজ বুধবার ভোর থেকে শীত বেড়ে যাওয়ায় স্বাভাবিক কাজকর্ম বিঘ্ন ঘটেছে।
বুধবার এ অঞ্চলের ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা যা দেশের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন বলে জানা গেছে।
আজ ভোর থেকে জেলার বিভিন্ন সড়কে কর্মজীবী খেটে খাওয়া মানুষের ভিড় কম দেখা গেছে। শীতের তীব্রতায় বাড়তি কাপড় পরে রাস্তায় নেমেছেন মানুষ।
চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছামাদুল ইসলাম বলেন, আজ সকাল নয়টায় চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর অঞ্চলে ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। যা ভোর ৬টায় ছিল ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রাজশাহীতে ৭ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর অঞ্চলের তাপমাত্রা দেশের মধ্যে আজ দ্বিতীয় সর্বনিম্ন।
আতিরন খাতুন নামে এক নারী শ্রমিক বলেন, প্রতিদিন ভোরে উঠে কাজে যাই। আজকে প্রচণ্ড শীতের কারণে বের হতে কষ্ট হচ্ছিল। তার পরেও পেটের তাগিদে বের হতে হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জেলার বিভিন্ন স্থানে শীত নিবারণে আগুনের উষ্ণতা নিচ্ছেন সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে দরিদ্র কর্মজীবী মানুষেরা পথেঘাটে আগুন জ্বালিয়ে শরীর গরম করার চেষ্টা করেছেন।
গাংনী বাসস্ট্যান্ডের বাস লাইনম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, ফজরের নামাজের পর থেকেই বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মানুষের ভিড় শুরু হয়। কিন্তু আজ মানুষের উপস্থিতি তেমনটি ছিল না। শ্রমিকরা যারা বাজারে এসেছেন তারা আগুন জ্বালিয়ে সময় কাটিয়েছেন। শীতের যে তীব্রতা তাতে অতিরিক্ত কাপড় গায়ে দিয়েও স্বস্তি পাচ্ছি না।