• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

বিশ্বের তৃতীয় দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ হচ্ছে বাংলাদেশ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০১৯  

চলতি বছর বিশ্বের তৃতীয় দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এই অবস্থানে থাকবে। সম্প্রতি জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে এসডি এশিয়া।

জাতিসংঘের ‘ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক সিচুয়েশন অ্যান্ড প্রসপেক্টস’ শীর্ষক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী ‘বিশ্ব অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ও প্রত্যাশা’ শীর্ষক জাতিসংঘের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি বছর বিশ্ব অর্থনীতিতে জিডিপি প্রবৃদ্ধির দিক থেকে শীর্ষে থাকবে সুদান। এই তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকবে ভারত। দেশ দুটির প্রত্যাশিত জিডিপি হবে যথাক্রমে ৮ দশমিক ১ এবং ৭ দশমিক শতাংশ। তালিকায় বাংলাদেশ তৃতীয় অবস্থানে আছে। যেখানে বাংলাদেশের প্রত্যাশিত জিডিপি প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে ৭ দশমিক ৬ শতাংশ।

দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনীতির ওপর গুরুত্ব দিয়ে জাতিসংঘের ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ২০১৯ সালে শক্তিশালী স্থায়ী বিনিয়োগ, বর্ধনশীল বেসরকারি খাত এবং মুদ্রানীতির কারণে এই অবস্থানে থাকবে বাংলাদেশ। গত বছর দেশীয় মুদ্রার মূল্যহ্রাস এবং তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় কিছুটা মুদ্রাস্ফীতি দেখা গিয়েছিল। কিন্তু এবার এমনটা হবে না। জাতিসংঘের প্রতিবেদন বলছে, সার্বিক বিবেচনায় ২০১৯ সালে দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক জিডিপি বেড়ে ৫ দশমিক ৪ শতাংশ উন্নীত হবে যা ২০২০ সালে হবে ৫ দশমিক ৯ শতাংশ।

অর্থনীতিতে বিভিন্ন কারণেই বাংলাদেশের সম্ভাবনা রয়েছে। এরমধ্যে অন্যতম হচ্ছে ভৌগোলিক অবস্থান। ভৌগোলিক দিক থেকে বাংলাদেশ অনেক সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে। চীন, ভারতের মতো উদীয়মান অর্থনীতির দেশ বাংলাদেশের পাশে। এ ছাড়া বিশ্বের ৬০ ভাগ ভোক্তার বিশাল বাজার রয়েছে বাংলাদেশের চারপাশে। এই বাজার যেসব বিনিয়োগকারী ধরতে চান তাদের কাছে কৌশলগত বিবেচনায় বাংলাদেশ অনেক আকর্ষণীয়। এ ছাড়া সাগর পথে যোগাযোগ, ব্যাপক কর্মক্ষম জনশক্তি বাংলাদেশের সম্ভাবনা। তবে এসব সম্ভাবনা কাজে লাগাতে ব্যবসা করার নিয়ম-কানুন, বন্দর, যোগাযোগ, জ্বালানি, নগরায়ণ, শিক্ষার মানে যে অগ্রগতি আনা দরকার সেগুলো সময়মত করতে হবে। তাহলেই ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক সিচুয়েশন অ্যান্ড প্রস্পেক্টাসের এই পূর্বাভাস বাস্তবে রূপ নেবে।