• শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৭ ১৪২৯

  • || ০১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

অতিরিক্ত ১৬৪ কোটি টাকা বরাদ্দ চায় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০১৯  

সংস্কৃতি, শিল্প ও সাহিত্য চর্চায় অতিরিক্ত ১৬৪ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছে সংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়। চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে পরিচালন ও উন্নয়ন খাতে এ মন্ত্রণালয়ের অনুকূলে ৫১০ কোটি টাকা বরাদ্দ রয়েছে। সংশোধিত বাজেটে ১৬৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা বৃদ্ধি করে ৬৭৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা নির্ধারণ করতে বলা হয়েছে।

গত ১৭ জানুয়ারি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব রোকসানা মালেক এনডিসি, অর্থ বিভাগের সচিব আব্দুর রউফ তালুকদারের কাছে চিঠি দিয়ে বাজেট বাড়ানোর এ প্রস্তাব পাঠিয়েছেন। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এ বিষয়ে রোকসানা মালেক বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে দেশের জেলা ও উপজেলায় বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান-উৎসব পালন করা হয়েছে। এসব অনুষ্ঠান ও উৎসবে ব্যয় বেড়েছে। এছাড়া মন্ত্রণালয়ের কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ খাতে ব্যয় বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দফতর বা সংস্থার অপরিহার্য খাতেও ব্যয় বেড়েছে। তাই অতিরিক্ত বরাদ্দের প্রয়োজন।

চিঠিতে বলা হয়, দেশজ সংস্কৃতি, শিল্প ও সাহিত্য চর্চার কার্যক্রমে সহায়ক ভূমিকা পালনের জন্য সংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে এ মন্ত্রণালয়ের অনুকূলে বরাদ্দ রয়েছে ৫১০ কোটি টাকা। এরমধ্যে পরিচালন ব্যয় ২৯০ কোটি টাকা এবং উন্নয়ন ব্যয় ২২০ কোটি টাকা।

সাম্প্রতিক সময়ে দেশের উন্নয়নের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সংস্কৃতির ক্ষেত্রেও ব্যাপক উন্নয়নমূলক কার্যক্রম সম্পাদন করা হয়েছে। দেশের জেলা ও উপজেলায় বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান-উৎসব পালন করা হয়েছে। এ বাবদ চলতি অর্থবছরে অতিরিক্ত ২৫ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয় করা হয়েছে।

এছাড়াও মন্ত্রণালয়ের কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ খাতে ব্যয় বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দফতর বা সংস্থার অপরিহার্য খাতে ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। পরিচালন ব্যয়ের বিপরীতে ২৯০ কোটি টাকা থেকে ৭২ কোটি ৭৭ লাখ টাকা ব্যয় বৃদ্ধি পাওয়ায় চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে ৩৬২ কোটি ৭৭ লাখ টাকা প্রয়োজন।

অপরদিকে উন্নয়ন খাতে চলতি অর্থবছরে কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য পরিকল্পনা কমিশনের বিশেষ উন্নয়ন-সহায়তা খাত থেকে বরাদ্দ নেয়া হয়েছে। ফলে এ খাতেও ব্যয় বেড়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের উন্নয়ন খাতে ২২০ কোটি টাকা থেকে ৯১ কোটি ৩৭ লাখ টাকা বাড়ায় সংশোধিত বাজেটে ৩১১ কোটি ৩৭ লাখ টাকা প্রয়োজন হবে।

হিসাব মোতাবেক পরিচালনা ও উন্নয়ন ব্যয় মেটানোর নিমিত্তে চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে সর্বমোট ৬৭৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা আবশ্যক। অর্থের চাহিদার প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দ এবং মূল বরাদ্দ ৫১০ কোটি টাকা থেকে ৬৭৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা সিলিং বৃদ্ধি করার প্রস্তাব সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘বাজেট ব্যবস্থাপনা কমিটি’ কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে।

এ অবস্থায় সংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে ৫১০ কোটি টাকার বিপরীতে পরিচালন ও উন্নয়ন খাতে ১৬৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা বৃদ্ধি করে সর্বমোট ৬৭৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা সিলিং নির্ধারণ করতে অর্থ বিভাগের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।