• বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ২ ১৪২৯

  • || ২০ মুহররম ১৪৪৪

কেমিক্যাল দিয়ে দুধ তৈরির অভিযোগ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৪ আগস্ট ২০২২  

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় পাউডার, পানি ও কেমিক্যাল দিয়ে দুধ তৈরির অভিযোগে এক ব্যবসায়ীকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উপজেলা প্রশাসন সাটুরিয়া ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর মঙ্গলবার সকালে উপজেলার হরগজ বাজারে যৌথ অভিযান পরিচালনা করেন। 

এক মাসের কারাদণ্ড অসাধু ব্যবসায়ী হচ্ছেন হরগজ ইউনিয়নের বালুচড় এলাকার মৃত নোমাজ আলী পুত্র মো. আতাউর রহমান।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মানিকগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল বলেন, পাউডার, পানি ও কেমিক্যাল দিয়ে বাড়িতেই বানানো হচ্ছে গরুর দুধ। খাঁটি দুধের চাহিদা থাকায় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী প্রতিনিয়তই তৈরি করে যাচ্ছেন ভেজাল দুধ। রাতের অন্ধকারে ঘরে বসেই ক্যামিকেল দিয়ে বানানো শত শত লিটার গরুর দুধ তৈরি করে এবং এই সকল নকল দুধ হরগজ বাজারে নিয়ে আসছে এবং সেই ভেজাল দুধের সাথে সমপরিমাণ খাঁটি দুধের মিশ্রণ ঘটিয়ে ঢাকায় সরবরাহ করছে। এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার ভোরে সকাল ছয়টা থেকে যৌথভাবে  উপজেলা প্রশাসন সাটুরিয়া ও জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর যৌথ অভিযান পরিচালনা করি। এসময় নিজেদের প্রস্তুতকৃত ১৫০ লিটারের অধিক নকল দুধ সহ ব্যবসায়ী আতাউর রহমান নামক একজন ব্যবসায়ীকে সনাক্ত করি।

অভিযুক্ত ব্যক্তির স্বীকার উক্তি ও উপস্থিত আলামতে নকল দুধের প্রমাণ পাওয়ায় সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাটুরিয়া শারমিন আরা আতাউর রহমান কে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। পরে   জব্দকৃত ১৫০ লিটার নকল দুধ তাৎক্ষণিকভাবে ধ্বংস করা হয় এবং ব্যবসায়ীকে থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়।

অপরদিকে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মানিকগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল  নিষিদ্ধ ও অবৈধ প্রসাধনী বিক্রয় ও সংরক্ষণ করার দায়ে মারুফ কাজল কসমেটিক্স নামক প্রতিষ্ঠানকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা ও আদায় করেন।

সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাটুরিয়া শারমিন আরা, অভিযোগ পেয়ে সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত ব্যবসায়ীকে কারাদণ্ড দিয়েছি। আমরা এমন অভিযান নিয়মিত করব। তবে এ ব্যপারে আমরা একা কাজ  করলে হবে না। সমাজের সব শ্রেণীর মানুষকে সচেতন হতে হবে।