• সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৯

  • || ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সিংগাইরে গণডাকাতি মামলার ৭ আসামি গ্রেফতার,অস্ত্রসহ মালামাল উদ্ধার

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২ অক্টোবর ২০২২  

মাসুম বাদশাহ , সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) ঃ মানিকগঞ্জের সিংগাইরে একরাতে ৫ বাড়িতে গণ ডাকাতি মামলার ৭ আসামিকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত রামদাসহ বেশ কিছু দেশীয় অস্ত্র এবং লুন্ঠিত নগদ ৪ হাজার ৫৭০ টাকা ও ২ ভরি ৪ আনা ওজনের রূপার গহনা উদ্ধার করেন পুলিশ ।
শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ সফিকুল ইসলাম মোল্যা ৭ ডাকাতকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
গ্রেফতারকৃত ডাকাত দলের সদস্যরা হলেন – সিংগাইর উপজেলার খোয়ামুরি গ্রামের সোনা মিয়ার পুত্র মহিদুর রহমান ওরফে শামীম (৩০), ব্রাহ্মনবাড়ীয়ার নবীনগর উপজেলার ছলিমগঞ্জ গ্রামের মৃত ইদন মিয়ার ছেলে মোঃ মোমেন মিয়া (২৮), ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার সাংগুর গ্রামের মৃত আজাহার সরদারের ছেলে মোঃ মিরাজ সরদার (৩৬), সিংগাইর উপজেলার চান্দহর ইউনিয়নের সোনাটেংরা গ্রামের মোঃ আদম আলী ছেলে মোঃ মোশারফ মোল্লা ওরফে মোসা (২৭), ওয়াইজনগর গ্রামের মৃত সাদেক খার ছেলে মোঃ কুদ্দুস খা (৫০), একই গ্রামের মোঃ মেজবান ওরফে পর্বতের ছেলে মোঃ আরমান (৩৫) ও জামির্ত্তা ইউনিয়নের বকচর পশ্চিম পাড়ার মোঃ তমেজ উদ্দিনের ছেলে ইসমাইল দেওয়ান (২৮)।
পুলিশ জানায়, গত ২১ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের গোবিন্ধল গ্রামের মৃত চমক আলী বেপারি ছেলে সৌদি প্রবাসী আবু সাইদ, আব্দুল লতিফের ছেলে কাদের ও মহিবুর,জরিপের ছেলে নুরু মিয়া, চান মিয়া আমিরের ছেলে আবুজরের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এতে গৃহকর্ত্রীদের মারধরসহ প্রায় ৬ লাখ ৬১ হাজার ৫০০ টাকার মালামাল লুটে নেয়। এ ঘটনায় ২২ সেপ্টেম্বর মোঃ মহিবুর (৫৯) বাদি হয়ে সিংগাইর থানায় অজ্ঞাতনামা ১০-১২ জনের নামে ডাকাতির অভিযোগে মামলা করেন। এরপর পুলিশ অভিযান চালিয়ে বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর ) রাতে মহিদুর রহমান ওরফে শামীমকে (৩০) গ্রেফতার করে । আদালতে শামীমের দেয়া ১৬৪ ধারা জবানবন্দির ভিত্তিতে ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে সিংগাইর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সাভার ও সিংগাইরের বিভিন্ন স্থান থেকে ডাকাত দলের অন্য ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করে।
এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সফিকুল ইসলাম মোল্যা বলেন, অন্যান্য পলাতক ডাকাতদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে। গ্রেফতারকৃত ৬ ডাকাতকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ডাকাত ইসমাইল দেওয়ান ব্যতিত অন্যান্য সকল ডাকাতদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা আদালতে বিচারাধীন।