• মঙ্গলবার   ২৪ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৯

  • || ২২ শাওয়াল ১৪৪৩

শেষ দিনে নৌকার প্রচার উৎসব

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮  

উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচনী প্রচার শেষ করেছে আওয়ামী লীগ ও মহাজোট। জনসভা, পথসভা, মিছিল, গণসংযোগ করে ভোটারদের মন জয়ের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার ভোর থেকে সারারাত মাঠ গরম করে রেখেছিলেন নৌকার প্রার্থীরা। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থেকে শুরু করে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়েছেন তৃণমূল কর্মীরাও। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে দেশজুড়ে ১০ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া ১৮ দিনের এই জমজমাট প্রচার শেষ হচ্ছে আজ শুক্রবার সকাল ৮টায়। এবার নির্বাচন ঘিরে প্রচারে এসেছে নতুনত্ব। পোস্টার, লিফলেট আর পথসভা, কর্মিসভা, উঠান বৈঠক ও গণসংযোগ করে ভোট চাওয়ার পাশাপাশি অনলাইনেও জমে উঠেছে নৌকার ভোটের লড়াই। আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের পক্ষে এবার বড় বহরে মাঠে নেমেছেন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শিল্প-সংস্কৃতি ও ক্রীড়াঙ্গনের তারকারা। একটি আসনে নির্বাচনী স্থগিত হওয়ায় ২৯৯টি আসনের সবগুলোতেই আওয়ামী লীগ ও মহাজোট প্রার্থীদের জমজমাট প্রচার উৎসব দেখা গেছে গতকাল। এবার আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা লড়ছেন ২৫৯ আসনে। মহাজোটের দ্বিতীয় বৃহত্তম শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থী সংখ্যা ২৫ জন। এ ছাড়া মহাজোট ও ১৪ দলের অন্য শরিকদের মধ্যে ওয়ার্কার্স পার্টি ৫, জাসদ (ইনু) ৩, বিকল্পধারা ৩, তরীকত ফেডারেশন ২, বাংলাদেশ জাসদ ১ এবং জাতীয় পার্টি (জেপি) ১টি আসনে মহাজোটের হয়ে লড়ছে। রাজধানীসহ সারাদেশে উৎসবমুখর পরিবেশে ঢাকঢোল, বাদ্য বাজিয়ে, মাইকিং করে, গানে গানে দল বেঁধে নৌকায় ভোট চেয়েছেন প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা। সিলেট, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, রংপুরে নৌকার শেষ মুহূর্তের প্রচারে মানুষের ঢল দেখা গেছে। মিছিল-স্লোগানে প্রকম্পিত হয়েছে ভোটের ময়দান। ভোটের মাঠ থেকে প্রতিবেদক, ব্যুরো, অফিস ও প্রতিনিধিদের খবরে প্রচারের শেষ দিনের আরও তথ্য-

ঢাকা :দেশের প্রাণকেন্দ্র ঢাকার সবগুলো আসনেই আওয়ামী লীগসহ মহাজোট প্রার্থীদের জমজমাট প্রচার দেখা গেছে শেষ দিনে। এদিন মহানগরীর ১৬টিসহ জেলার ২০টি আসনের প্রার্থীরাই সরব ছিলেন প্রচারে। এই ২০ আসনের মধ্যে ৩টি বাদে ১৭টিতেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা নির্বাচনে লড়ছেন। মহাজোটের জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনের মাঠে থাকা ঢাকা-৪ আসনের সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা ও ঢাকা-৬ আসনের কাজী ফিরোজ রশিদ এবং ওয়ার্কার্স পার্টি থেকে নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ঢাকা-৮ আসনের রাশেদ খান মেননের পক্ষে জমজমাট প্রচার চালিয়েছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মী-সমর্থক।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী ঢাকা-১ আসনের সালমান এফ রহমান, ঢাকা-২ আসনের অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ঢাকা-৩ আসনের নসরুল হামিদ বিপু, ঢাকা-৫ আসনের হাবিবুর রহমান মোল্লা, ঢাকা-৭ আসনের হাজী মোহাম্মদ সেলিম, ঢাকা-৯ আসনের সাবের হোসেন চৌধুরী, ঢাকা-১০ আসনের ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, ঢাকা-১১ আসনের এ কে এম রহমতুল্লাহ, ঢাকা-১২ আসনের আসাদুজ্জামান খান কামাল, ঢাকা-১৩ আসনের সাদেক খান, ঢাকা-১৪ আসনের আসলামুল হক আসলাম, ঢাকা-১৫ আসনের কামাল আহমেদ মজুমদার, ঢাকা-১৬ আসনের ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, ঢাকা-১৭ আসনের আকবর হোসেন পাঠান ফারুক, ঢাকা-১৮ আসনের অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, ঢাকা-১৯ আসনের ডা. এনামুর রহমান এবং ঢাকা-২০ আসনের বেনজীর আহমেদের পক্ষে ক্ষমতাসীন দলসহ মহাজোটের শরিক দলগুলোর নেতাকর্মীরা গতকাল গভীর রাত পর্যন্ত মাঠে সক্রিয় ছিলেন।

এদিকে, ঢাকার সবগুলো আসনেই প্রতিপক্ষ বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীরা মাঠে না থাকায় এর সুবিধা পেয়েছেন মহাজোট প্রার্থীরা। শেষ দিনে প্রায় একচেটিয়া প্রচার চালিয়েছেন তারা। তবে ইসলামী আন্দোলন এবং বাম গণতান্ত্রিক জোটের সিপিবি, বাসদ ও গণসংহতি আন্দোলনের প্রার্থীরা মাঠে সক্রিয় ছিলেন।

সিলেট :সিলেটে উৎসবমুখর পরিবেশে শোডাউন, মিছিল ও জনসভার মাধ্যমে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের প্রচার শেষ হয়েছে। এই বিভাগের ১৯ আসনে মহাজোটের প্রার্থীদের পাশাপাশি তাদের কর্মী-সমর্থকরা আলাদাভাবে প্রচার চালান। অনেক জায়গায় নৌকা ও প্রার্থীর ছবি সংবলিত গেঞ্জি পরে শোডাউন করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল প্রচারের শেষ দিন সিলেট হয়ে ওঠে মিছিলের নগরী। এ ছাড়া বিভাগের প্রত্যেক আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা নৌকা প্রতীক নিয়ে শোডাউন করেন।

মর্যাদাপূর্ণ সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড. এ কে আবদুল মোমেনের পক্ষে গতকাল বিকেলে নগরীতে বিশাল বিশাল শোডাউন করা হয়। হেভিওয়েট প্রার্থীদের মধ্যে সিলেট-৬ আসনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বিয়ানীবাজারে গণসংযোগ ও সমাবেশ করেন।

সুনামগঞ্জ-৩ আসনে মহাজোটের প্রার্থী অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান গতকাল জগন্নাথপুরে জনসভা করেন। সিলেট-৪ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইমরান আহমদ গোয়াইনঘাট উপজেলার রুস্তুমপুরে নির্বাচনী জনসভা করেন। সিলেট-৫ আসনে হাফিজ আহমদ মজুমদার রাতে কানাইঘাটের শিবনগরে শেষ নির্বাচনী জনসভা করেন।

চট্টগ্রাম :আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা শেষ দিনের প্রচার মাতিয়েছেন বড় বড় শোডাউন করে। কর্মী-সমর্থকদের হাতে দেখা গেছে ঢোল, একতারা-দোতারা। গানের সুরে ভোট চেয়েছেন তারা। দেখা গেছে বর্ণাঢ্য র‌্যালি। চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে নৌকার প্রার্থী মাহফুজুর রহমান মিতার গুণগান করা হয় জারি গান গেয়ে। ব্যান্ডের তালে নেচে নেচে তার কর্মী-সমর্থকরা চাইছেন ভোট। জনপ্রিয়তার জানান দিতে জেলার রাউজান উপজেলায়ও নৌকার প্রার্থী এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী পৌরসভা এলাকায় বর্ণাঢ্য মিছিল করেন। রাঙ্গুনিয়ায়ও গতকাল বিশাল শোডাউন করেছেন নৌকার প্রার্থী ড. হাছান মাহমুদ। বর্ণিল এক জনসভা করেন তিনি। শুধু গ্রাম নয়, শেষ মুহূর্তের প্রচারে সরগরম ছিল চট্টগ্রাম শহরও। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী করতে ভোট চেয়েছেন সব প্রার্থী।

খুলনা :উৎসবমুখর পরিবেশে খুলনার ছয়টি আসনে ব্যাপক গণসংযোগ, জনসভা ও মিছিলে প্রচারের শেষ দিন পার করেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা। খুলনা-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পঞ্চানন বিশ্বাস গতকাল দুপুরে চালনায় জনসভা করেন। খুলনা-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে জমজমাট প্রচার করা হয়েছে। খুলনা-৩ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান গণসংযোগ ও পথসভা করেছেন নগরের খালিশপুরের বিভিন্ন এলাকায়। গভীর রাত পর্যন্ত তার নেতাকর্মীরা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট চেয়েছেন।

শেষ দিনে ব্যস্ত সময় পার করেছেন খুলনা-৪ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুস সালাম মুর্শেদী। তিনি রূপসা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ, পথসভা ও সমাবেশ করেন। খুলনা-৫ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ গতকাল ডুমুরিয়া ও ফুলতলায় জনসভা করেন। খুলনা-৬ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী আক্তারুজ্জামান বাবু গণসংযোগ করেছেন পাইকগাছা উপজেলায়।

রাজশাহী :রাজশাহী সদর আসনে মহাজোট ও আওয়ামী লীগ প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশা ও তার নেতাকর্মীরা দিনরাত এক করে মানুষের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে ভোট চেয়েছেন। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি নগরবাসীর কাছে আবারও নৌকায় ভোট চান। রাত পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় তার সঙ্গে ভোট চেয়েছেন রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-৪ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী এনামুল হক, রাজশাহী-৩ আসনের প্রার্থী আয়েন উদ্দীন, রাজশাহী-৫ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী ডা. মনসুর রহমান ও রাজশাহী-৬ আসনের প্রার্থী শাহরিয়ার আলম সর্বোচ্চ শক্তি নিয়ে মাঠে গণসংযোগ করেছেন। গভীর রাত পর্যন্ত তারা ভোটারদের কাছে ভোট চেয়েছেন। ভোটের প্রচারে পুরো রাজশাহী মেতে ওঠে উৎসবে। প্রচারের শেষ দিনে বগুড়ার সব আসনে ব্যস্ত সময় পার করেছেন মহাজোটের প্রার্থীরা।

বরিশাল :’শেখ হাসিনার সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন’ স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে বরিশাল নগরী। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে আওয়ামী লীগ প্রার্থী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীমকে নিয়ে বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর নেতৃত্বে নগরীতে বড় ধরনের শোডাউন করা হয়। দিনজুড়ে ছিল বিভিন্ন কর্মসূচি। সর্বস্তরের নেতাকর্মী নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়ে চেয়েছেন ভোট।

বরিশাল-১ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর বিশাল নির্বাচনী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বরিশাল-২ আসনে নৌকার প্রার্থী শাহে আলমের সমর্থনে গতকাল বিশাল নির্বাচনী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় বানারীপাড়ায়। বরিশাল-৪ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পংকজ নাথের বড় নির্বাচনী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে হিজলায়। ভোটের প্রচারের শেষ দিনে সব মিলে বরিশাল হয়ে ওঠে এক উৎসবের জনপদ।

রংপুর :প্রচারের শেষ সময়ে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট চেয়ে দিনরাত ব্যস্ত সময় পার করেছেন রংপুরের ছয়টি আসনের নৌকার প্রার্থীরা। রংপুর-৬ পীরগঞ্জ আসনে গতকাল ব্যাপক গণসংযোগ করেন আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থী ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। রংপুর-৫ মিঠাপুকুর আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এইচ এন আশিকুর রহমান পথসভা, গণসংযোগ করে ভোট চেয়েছেন।

রংপুর-৪ (পীরগাছা-কাউনিয়া) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী টিপু মুন্সি দিনভর নেতাকর্মীদের নিয়ে ছুটে বেড়িয়েছেন এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায়। রংপুর-৩ সদর আসনে মহাজোটের প্রধান শরিক জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পক্ষে বিশাল শোডাউন হয়েছে। গভীর রাত পর্যন্ত এরশাদের জন্য ভোট চেয়েছেন তার কর্মী-সমর্থকরা।

রংপুর-২ (বদরগঞ্জ-তারাগঞ্জ) আসনে প্রচারের শেষ মুহূর্তে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক নির্বাচনী ময়দান চষে বেড়িয়েছেন। রংপুর-১ আসনে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁর পক্ষে বড় বড় মিছিল হয়েছে। সব মিলে শেষ দিনের প্রচারে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয়ের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছেন।