• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

বিএনপির পরাজয়ের বড় কারণ ঐক্যফ্রন্ট, ইঙ্গিত ফখরুলের দিকেও!

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৩০ জানুয়ারি ২০১৯  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির শোচনীয় পরাজয়ের নানা কারণ অনুসন্ধানে তৎপর হয়েছে দলের নেতারা। এমন প্রেক্ষাপটে ২০ দলীয় জোটের শরিক লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বিএনপির পরাজয়ের বড় কারণ হিসেবে ঐক্যফ্রন্ট গঠনকেই দায়ী করেছেন। তিনি মনে করেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টই বিএনপিকে ডুবিয়েছে।

সম্প্রতি জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে’বাংলাদেশ লেবার পার্টি আয়োজিত ‘সংহতি সমাবেশে’সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমালোচনা করে লেবার পার্টির সভাপতি বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলার সময় এসেছে। গণতন্ত্রের স্বার্থে আমরা কোন কিছু বলিনি, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের কোন প্রয়োজন ছিল না। এটা আমাদের ডুবিয়েছে।

২০ দল পরীক্ষিত জোট দাবি করে ইরান বলেন, ২০ দল পরীক্ষিত জোটকে বিতর্কিত করতে দলের মধ্যেই সরকারের দালালরা প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। নিজেদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, পাতানো নির্বাচনের পরে কোন কর্মসূচি না দেয়ায় আমাদের নেতৃত্ব ব্যর্থ হয়েছে।

সভায় ২০ দলের অন্যতম শীর্ষ নেতা সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, ২০ দলীয় জোটকে কার্যকর রাখতে নিজেদের সমন্বয় প্রয়োজন। আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে গিয়েছে বিএনপি, কিন্তু কেন আন্দোলনে যাচ্ছেন না? আসলে আমাদের কোথাও গলদ আছে, আমরা বোবা হয়ে গেছি।

সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিমের বক্তব্যের প্রসঙ্গে দলের অভ্যন্তরে গুঞ্জন উঠেছে- নির্বাচনে অংশগ্রহণ, নির্বাচন পরবর্তী সময়ে আন্দোলনে না যাওয়ার বিষয়টি ঐক্যফ্রন্টের শরিক নেতাদের পাশাপাশি মির্জা ফখরুল ইসলামের ওপরেও বর্তাচ্ছে। কেননা, ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয়ক ভূমিকায় ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম। প্রশ্ন উঠছে, নির্বাচনে অংশগ্রহণ ও নির্বাচন পরবর্তী আন্দোলনে না গিয়ে স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যের নেপথ্যে কি মির্জা ফখরুলের কারসাজি রয়েছে? দলের বৃহৎ স্বার্থ থেকে সরে গিয়ে তিনি কি কোন ব্যক্তিস্বার্থের পিছু ছুটেছেন?