• মঙ্গলবার   ৩০ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৮

  • || ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

করোনায় বিশ্বে একদিনে মৃত্যু ৩২০০

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৮ মার্চ ২০২০  

সারা বিশ্বে উদ্বেগজনক হারে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। আক্রান্তের তালিকায় কোন দেশ নেই, তা খুঁজতে এখন রীতিমতো গলদঘর্ম হতে হবে। এ ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানোর চেষ্টায় লকডাউন, সামাজিক দূরত্ব সৃষ্টি প্রভৃতি নানা উপায় অবলম্বন করা হলেও বেড়েই চলেছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, এ ভাইরাসে পুরো বিশ্বে একদিনে সর্বোচ্চ ৩ হাজার দুইশ’ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এনিয়ে মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়ালো। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৬ লাখ। 

এদিকে এ ভাইরাস সারাবিশ্বে আতঙ্ক ছড়ালেও রীতিমতো তাণ্ডব শুরু করেছে ইউরোপের দেশগুলোতে। করোনা সংক্রমণ শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ইউরোপের অন্তত তিনটি দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

ইতালিতে এ ভাইরাসে একদিনে ৯১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ৯ হাজার ১৩৪জনে দাঁড়িয়েছে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৬ হাজার ৪৯৮জন। এরমধ্যে চিকিৎসাধীন ৬৬ হাজার ৪১৪। যাদের মধ্যে তিন হাজার জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১০ হাজার ৯৫০জন। 

স্পেনে ২৪ ঘন্টায় মারা গেছে ৭৭৩ জন। এনিয়ে মৃতের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়ালো। দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজারের বেশি মানুষ। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫ হাজারের বেশি।

সুইজারল্যান্ডে একদিনে ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাড়ালো ২৩১ জনে। আক্রান্ত হয়েছে ১২ হাজার ৯২৮ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে একদিকে ৪শ’ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে মোট মৃতের সংখ্যা ১ হাজার ৭০৪ জনে পৌঁছেছে। গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ১৮ হাজার। এ দিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ৪ হাজার ২৫৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়া, ২৪ ঘন্টায় ফ্রান্সে ২৯৯, যুক্তরাজ্যে ১৮১, ইরানে ১৪৪, নেদারল্যান্ডে ১১২, জার্মানিতে ৮৪, বেলজিয়ামে ৬৯, সুইজারল্যান্ডে ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী পর এবার এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক। এরআগে, শুক্রবার নিজের করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের খবর নিশ্চিত করেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। 

এদিকে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস মোকাবেলায় দুই লক্ষ কোটি ডলারের বিলে সই করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এদিকে, ভাইরাস মোকাবেলায় বিশ্বব্যাপী সুরক্ষা সামগ্রীর চরম সঙ্কট রয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস মানুষ ও প্রাণীদের ফুসফুসে সংক্রমণ করতে পারে। ভাইরাসজনিত ঠান্ডা বা ফ্লুর মতো হাঁচি-কাশির মাধ্যমে মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস। ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হওয়ার প্রধান লক্ষণগুলো হলো, শ্বাসকষ্ট, জ্বর, কাশি, নিউমোনিয়া ইত্যাদি। তাছাড়া শরীরের এক বা একাধিক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ নিষ্ক্রিয় হয়ে আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু হতে পারে।

বর্তমানে সবচেয়ে আতঙ্কের বিষয় হলো ভাইরাসটি নতুন হওয়ায় এখনো কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি। ভাইরাসটির সংক্রমণ থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় সংক্রমিত ব্যক্তিদের থেকে দূরে থাকা। তাই মানুষের শরীরে এমন উপসর্গ দেখা দিলেই দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চীনা বিজ্ঞানীরা।