• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

চলে গেলেন সবার প্রিয় ইসমাইল ভাই

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০১৯  

প্রায় ৪৫ বছরের চাকরিজীবন ৭৫ বছর বয়সে চাকরিরত অবস্থায় যখন মারা গেলেন তখন বেতন সাড়ে তিন হাজার টাকা তাও ১০ মাস ধরে বকেয়া ছিল এর পরও প্রিয় লাইব্রেরি ত্যাগ করতে পারেননি কেননা এটাই যে ছিল তার দ্বিতীয় বাড়ি

মানিকগঞ্জ পাবলিক লাইব্রেরির পিয়ন ইসমাইল হোসেনের কথা বলা হচ্ছিল সবার প্রিয় ইসমাইল ভাই শ্বাসকষ্ট নিয়ে বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন রাত ৩টার দিকে চলে গেলেন না ফেরার দেশে

মানিকগঞ্জের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের উদ্যোগে ১৯৬০ সালে গড়ে ওঠে মানিকগঞ্জ পাবলিক লাইব্রেরি ১৯৭২ সালের দিকে এই লাইব্রেরিতে সামান্য কয়েক শ টাকা বেতনে পিয়ন হিসেবে যোগ দেন ইসমাইল হোসেন

অধ্যাপক সাইফুদ্দিন আহম্মেদ নান্নু স্মৃতিচারণা করে বললেন, ‘১৯৭৩ সালে তিন টাকা দিয়ে এই লাইব্রেরির সদস্য হয়েছিলাম ইসমাইল ভাইয়ের হাত ধরে মাসে চার আনা চাঁদার রসিদও কেটে দিতেন তিনিই অথচ তিনি যে মাত্র সাড়ে তিন হাজার টাকা বেতন পেতেন এটাই জানা হয়নি একজন দিনমজুরও মাসে এর চেয়ে বেশি রোজগার করেন

লাইব্রেরিয়ান শাহ আলম রবিন বলেন, ‘শুধু পিয়নই না, অলিখিতভাবে ইসমাইল ভাইকে লাইব্রেরির নৈশপ্রহরীর দায়িত্বও পালন করতে হতো হাজার কষ্টের মধ্যেও ৪৫ বছরের মায়া ত্যাগ করে আর কোথাও যাওয়ার ইচ্ছাও ছিল না ইসমাইল ভাইয়ের বলতেন, শেষ জীবন পর্যন্ত এখানেই থেকে যাবেন সাদাসিধে মানুষটা নিজের কথা রেখেছেন; কিন্তু তার কথা কি কেউ মনে রাখবে!’