• বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

হল ভাঙার ও পাঁচটি ভবন মেরামতের সুপারিশ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৮ মার্চ ২০২৩  

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) মীর মশাররফ হোসেন হল সাত দিনের মধ্যে ভেঙে পুনর্নির্মাণ ও পাঁচটি ভবন মেরামতের সুপারিশ করেছে রাজধানী নগর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। মেরামতের সুপারিশ করা ভবনগুলো হলো- জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, পুরাতন কলাভবন, নতুন কলাভবন, কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ভবন।

জানা যায়, বিশ্বব্যাংক ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত আরবান রেজিলিয়েন্স প্রকল্পের আওতায় করা ভূমিকম্প ঝুঁকি মূল্যায়ন বিবেচনায় এ সুপারিশ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উক্ত ভবনগুলো ভূমিকম্পে ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এই সুপারিশ করা হয়েছে। আরবান রেজিলিয়েন্সের প্রকল্প পরিচালক আবদুল লতিফ হেলালী বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

আবদুল লতিফ হেলালী বলেন, আরবান রেজিলিয়েন্স প্রকল্পের আওতায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১৩টি ভবনের র‌্যাপিড ভিজ্যুয়াল স্ক্রিনিং অ্যাসেসমেন্ট (আরভিএসএ), ৩৫টির প্রিলিমিনারি ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যাসেসমেন্ট (পিইএ) ও ১৩টির ডিটেইল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যাসেসমেন্ট (ডিইএ) করা হয়। এর মধ্যে একটি ভবন ভেঙে পুনর্নির্মাণ ও পাঁচটি ভবন মজবুতকরণের মাধ্যমে ব্যবহার করার সুপারিশ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চুক্তিভিত্তিক রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ বলেন, ‘১ মার্চ ভবন ভাঙা ও মেরামত সংক্রান্ত একটি চিঠি আসে। কিন্তু চিঠিতে ভবনের সুনির্দিষ্ট নাম না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজউককে চিঠি পাঠানো হয়। পরে রাজউক থেকে পুনরায় আসা চিঠিতে সব কটির তালিকা না থাকায় চিঠি আবার পাঠাতে বলা হয়েছে।'

ভবন ভাঙার বিষয়ে রহিমা কানিজ বলেন, ‘রাজউক বলেছে সাত দিনের মধ্যে ভেঙে ফেলতে। কিন্তু একটা ভবনতো সাত দিনের মধ্যে ভেঙে ফেলা সম্ভব নয়। অনেক শিক্ষার্থী স্থানান্তরের বিষয় এখানে জড়িত। এবিষয়ে সিন্ডিকেটে আলোচনা সাপেক্ষে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।’