• বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৬ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সড়ক ও ফুটপাতে দোকান বসিয়ে চাঁদাবাজি

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৫ মে ২০২৪  

কেরানীগঞ্জে সড়ক ও ফুটপাতে দোকান বসিয়ে চাঁদাবাজি দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার আবদুল্লাহপুর এলাকায় বঙ্গবন্ধু হাইওয়ের পার্শ্ববর্তী শাখা সড়ক ও ফুটপাত অবৈধভাবে দখল করে প্রায় দুই শতাধিক বিভিন্ন সবজির ও ফলের ভ্যানগাড়ি বসিয়ে প্রতিদিন ৬০ হাজার টাকা চাঁদা তোলেন তেঘরিয়া ইউনিয়ন বিএনপি সভাপতি  খোরশেদ ও স্থানীয় নেতা রবিন। 

চাঁদার সিংহভাগই পায় পুলিশ। এ অভিযোগ তুলেছে এলাকাবাসী। এ অবৈধ ভাসমান দোকানের কারণে রাস্তায় তীব্র যানজট সৃষ্টি হওয়াসহ পথচারীদের ভোগান্তির শেষ নেই। বেশি সমস্যায় পড়তে হয় শিক্ষার্থীদের।ভুক্তভোগীরা জানান, তার পুলিশসহ স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধির কাছে একাধিকবার অভিযোগ দিয়েও কোনো ফল পাননি।

অভিযোগে জানা যায়, খোরশেদ আলম ও রবিন কলাকান্দি থেকে লিচু মিয়া মার্কেট পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে এলোমেলো অবস্থায় সবজি ও ফলের ২০০ ভ্যানের অস্থায়ী দোকান বসিয়ে ভ্যানপ্রতি ৩০০ টাকা করে দৈনিক চাঁদা তুলছেন। 

দৈনিক চাঁদার পরিমাণ ৬০ হাজার টাকা। যার একটি অংশ পুলিশের অসাধু সদস্যরা পেয়ে থাকেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।  তবে থানার অফিসার ইনচার্জ মামুন অর রশিদের দাবি, পুলিশ সদস্যরা চাঁদাবাজিতে জড়িত নন। কেউ যদি রাস্তা দখল করে জনসাধারণের ভোগান্তি সৃষ্টি ও চাঁদাবাজি করেন তা হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অন্যদিকে সরেজমিনে দেখা গেছে, কামতলী, চুনকুটিয়া কালীগঞ্জ, ইকুরিয়া, হাসনাবাদ এলাকায় সড়ক ও ফুটপাত দখল করে শত শত ভাসমান দোকান বসিয়ে চাঁদাবাজরা প্রতিদিন রাস্তার পাশের ভাসমান দোকান থেকে লাখ লাখ টাকা চাঁদা তুলছে। চাঁদাবাজদের সব ধরনের সহায়তা করছে পুলিশ এবং স্থানীয় নেতারা। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।