• রোববার ২১ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৬

প্রতারণার ২ লাখ টাকা ফেরত ‍দিতে প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৪ জুন ২০২৪  

রাজশাহীর তানোরের পোস্ট মাস্টারের মাধ্যমে প্রতারিত পারুল বেগমকে তার জমানো ২ লাখ টাকা ফেরত দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। গতকাল রবিবার (২৩ জুন) ঢাকায় তানোর পোস্ট অফিসে গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় করণীয় সংক্রান্ত এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত দেন প্রতিমন্ত্রী।

গত ২৩ মে গণমাধ্যমে ‘পোস্ট অফিসে রাখা গ্রাহকদের টাকা উধাও, নারীর আত্মহত্যাচেষ্টা!’ শীর্ষক এক প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। রাজশাহীর তানোর পোস্ট অফিসে নিজের জমানো ২ লাখ টাকার হদিস না পেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান পারুল বেগম নামের ওই নারী। পরে সেই সংবাদের ভিত্তিতে প্রতিমন্ত্রী ডাক অধিদফতরের মহাপরিচালকের কাছে বিস্তারিত ব্যাখ্যা চান। অধিদফতরের ব্যাখ্যায় বলা হয়, পারুল বেগম তানোর উপজেলা ডাকঘরে ২ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র কিনেছিলেন। মেয়াদ শেষ হওয়ার পর পুনরায় মুনাফা লাভের আশায় উপজেলা পোস্ট মাস্টার মোহাম্মদ মোকসেদ আলীর কাছে ২ লাখ টাকা জমা রাখেন এবং মাসে মাসে যথারীতি আগের মতোই মুনাফা গ্রহণ করতেন।

কিন্তু দ্বিতীয়বারে ২ লাখ টাকা জমা রাখার সময় তার অফিসিয়ালি কোনো সঞ্চয়পত্র কেনা হয়নি অথবা পোস্ট অফিসে এফ ডি, এসবিতে টাকা জমা রাখেননি। পোস্টমাস্টারের সঙ্গে পারস্পরিক বিশ্বাসে আর্থিক লেনদেন করেছেন মাত্র। যেহেতু পারস্পরিক বিশ্বাসে টাকা জমা রেখেছেন সে ক্ষেত্রে এর দায় ডাক বিভাগের ওপর বর্তায় না। তবুও প্রতিমন্ত্রী পলক ডাক অধিদফতরকে পারুল বেগমের ২ লাখ টাকা ফেরত দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। তাছাড়া এ ধরনের ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সেজন্য যথোপযুক্ত আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ ও জনসচেতনতা সৃষ্টিতে প্রচারণা এবং স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার দির্দেশনা দেন জুনাইদ আহমেদ পলক।

এ বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ডাক বিভাগের কিছু অসৎ কর্মীর জন্য গোটা ডাক পরিবার ও ডাক পরিবারের সদস্যদের সম্মান আমরা নষ্ট করতে চাই না। তাই ডাক পরিবারের সম্মান অক্ষুন্ন রাখতে এবং বাংলাদেশের নাগরিকদের কাছে ডাক বিভাগের গ্রহণযোগ্যতা বহালের জন্য এই বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে, অসৎ ও অন্যায়কারীদের প্রতিহত করতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, তানোরের পারুল বেগমের কান্না ডাক বিভাগের দায়বদ্ধতার বিষয়। আর কোনো পারুল বেগমের কান্নার কারণ যেন ডাক বিভাগ না হয়, তাই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। দেশের ডাক বিভাগের সেবার মান বৃদ্ধি ও সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিত করে বাংলাদেশের নাগরিকদের নির্বিঘ্ন সেবা দেয়ায় সচেষ্ট থাকার কথা জানান প্রতিমন্ত্রী।