• রোববার ২৬ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪৫

লিবিয়ার পথে বিমান বাহিনীর ত্রাণ

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েল ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লিবিয়ার মানুষের সহায়তার জন্য প্রয়োজনীয় ত্রাণসামগ্রী ও ওষুধ পাঠিয়েছে বাংলাদেশ। সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের তত্ত্বাবধানে বিমান বাহিনীর একটি পরিবহন বিমান (সি ১৩০ জে) বৃহস্পতিবার রাতে ত্রাণ নিয়ে লিবিয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করেছে। বিমানটিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দেওয়া শুকনো খাবার, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ও জরুরি জীবনরক্ষাকারী ওষুধ পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়াও সেনাবাহিনী থেকে দেওয়া প্রয়োজনীয় ওষুধ ও অন্যান্য চিকিৎসা সামগ্রীও রয়েছে ওই বিমানে।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা সেনানিবাসের বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুতে ত্রাণ পাঠানোর প্রস্তুতিসহ সামগ্রিক বিষয়ে কথা বলেন সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার–উজ–জামান। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘যত দ্রুত সম্ভব ত্রাণ পৌঁছানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সেই অনুযায়ী প্রায় সাড়ে ১০ টন ত্রাণ সহায়তা পাঠানো হচ্ছে। রাত ৮টায় ঢাকা থেকে যাত্রা শুরুর আনুমানিক পৌনে ৮ ঘণ্টা পর বিমানটি সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) পৌঁছাবে। পরে সেখান থেকে আরও সাত ঘণ্টার পথ পাড়ি দিয়ে পৌছাবে লিবিয়ায়। আশা করছি এসব পেয়ে সেখানকার দুর্গত মানুষ উপকৃত হবে। প্রয়োজন হলে আরও ত্রাণসামগ্রী পাঠানোর পরিকল্পনা রয়েছে।’

সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (পরিচালন) এয়ার ভাইস মার্শাল এ এইচ এম ফজলুল হক রাতে বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুর এয়ার মুভমেন্ট এলাকায় ত্রাণ সহায়তা নিয়ে যাওয়া দলকে বিদায় জানান। এ সময় তিনি তাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন। তখন বাংলাদেশে নিযুক্ত লিবিয়ার রাষ্ট্রদূত আবদুল মুতালিব সুলাইমান মোহাম্মদ সুলাইমানসহ দূতাবাসের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ (আইএসপিআর) পরিদপ্তর সূত্র জানায়, গত ১০ সেপ্টেম্বর ঘূর্ণিঝড় ও বন্যায় উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলে ব্যাপক প্রাণহানি, বিভিন্ন স্থাপনার ক্ষতিসহ মানবিক বিপর্যয়ের সৃষ্টি হয়। ঝড়ের আঘাতে এবং বন্যায় ২০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ছাড়া হাজার–হাজার মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন। খাবার, জ্বালানি, বিশুদ্ধ পানি, বিদ্যুৎ সরবরাহ, পর্যাপ্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং আশ্রয়ের অভাবে সেখানে এক সংকটময় পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর সানুগ্রহ নির্দেশনা এবং ‘সমন্বিত উন্নয়ন’ নীতির ভিত্তিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিকল্পনা ও সার্বিক সমন্বয়ে লিবিয়ার বন্যাদুর্গত মানুষের সহায়তায় বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে জরুরি মানবিক সহায়তা হিসেবে ত্রাণ পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর পরিবহন বিমানটির ফেরার কথা রয়েছে।