• বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২১ ১৪২৯

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

স্ত্রীকে হত্যা: ২১ বছর পালিয়ে ছিলেন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত স্বামী

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৫ আগস্ট ২০২২  

যৌতুকের দাবিতে মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলায় স্ত্রীর শরীরে পেট্রোল ঢেলে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামিকে ২১ বছর পর গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৪। শনিবার (১৩ আগস্ট) রাতে ঢাকার বংশাল এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামির হলো মো. আলম। তার বাড়ি সিঙ্গাইরের আটিপাড়া গ্রামে।

র‌্যাব-৪ এর মানিকগঞ্জ ক্যাম্প সূত্রে জানা গেছে, ২০০১ আটিপাড়া গ্রামের আলমের সঙ্গে একই গ্রামের মকবুল হোসেনের মেয়ে আম্বিয়া বেগমের বিয়ে হয়। বিয়েতে যৌতুক হিসেবে মকবুল আসবাব, নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার দেন। পরবর্তীতে আলম শ্বশুরবাড়ি থেকে আরও ৫০ হাজার টাকা এনে দেওয়ার জন্য স্ত্রী আম্বিয়াকে বিভিন্ন সময়ে মারধর করে। এক পর্যায়ে ২০০১ সালের ৫ সেপ্টেম্বর রাতে সিঙ্গাইরের আটিপাড়া গ্রামে যৌতুকের দাবিতে আম্বিয়া বেগমের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় স্বামী মো. আলম। পরের দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গৃহবধূ আম্বিয়া মারা যান।

এ ঘটনায় নিহত আম্বিয়ার বাবা মকবুল হোসেন বাদি হয়ে আলমকে প্রধান আসামি করে তার স্বজন রহিজ উদ্দিন, আলেয়া বেগম, রবিউল ইসলাম ও আফতাব হোসেনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। ২০০১ ডিসেম্বর মাসে মামলার তদন্তকর্মকর্তা আলমের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন।

২০০৩ সালের ৩০ নভেম্বর মানিকগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসামি আলমের অনুপস্থিতি মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত না থাকায় বাকি আসামিদের অভিযোগপত্র থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। রায় ঘোষণার পর আসামিপক্ষে আইনজীবী উচ্চআদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল আবেদন করলে উচ্চ আদালত সেই রায় বহাল রাখেন।

র‌্যাব-৪ এর সিপিসি-৩ মানিকগঞ্জ ক্যাম্পের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আরিফ হোসেন বলেন, আসামি আলম জামিনে বের হওয়ার পর জাতীয় পরিচয় পরিবর্তন করে ঢাকায় বসবাস শুরু করেন। তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করে স্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে রাজধানীর টিকাটুলি এলাকায় বসবাস করতেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার রাতে রাজধানীর বংশালের একটি জুতার কারখানা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার আসামিকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানায় র‍্যাব।