• বুধবার   ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৯ ১৪২৯

  • || ১০ রজব ১৪৪৪

সিঙ্গাইরে বিএনপির ১৩ নেতাকর্মীর নামে মামলা, তিনজন গ্রেপ্তার

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৮ নভেম্বর ২০২২  

সিএনজিচালিত অটোরিকশায় অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগে মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের ১৩ নেতাকর্মীর নামে থানায় মামলা হয়েছে।   রবিবার (২৭ নভেম্বর) মামলাটি করেন ক্ষতিগ্রস্ত অটোরিকশা চালক রুবেল মিয়া। এই মামলায় পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গফুরসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে এদিন দুপুরে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত অন্য দুজন হলেন- উপজেলার লক্ষীপুর তালতলা গ্রামের মৃত দলিল উদ্দীনের ছেলে আব্দুস ছালাম (৪৫) ও হিসামুদ্দিনের ছেলে আব্দুস সামাদ (৩৬)।

তবে সিঙ্গাইর পৌর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম ভূঁইয়া জয় বলেছেন, হয়রানি করার জন্য বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে নতুন করে মিথ্যা ও সাজানো মামলা দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় বিএনপির কোনো নেতাকর্মী জড়িত নন।
থানা পুলিশ ও মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকার গণসমাবেশকে সামনে রেখে শনিবার (২৬ নভেম্বর) দিবাগত রাতে পৌর বিএনপি একটি মিছিল বের করে। রাত সাড়ে ৮টার দিকে সিঙ্গাইর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে ওই মিছিলে থাকা বিএনপির নেতাকর্মীরা একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় আগুন ও কয়েকটি ককটেল (হাতবোমা) বিস্ফোরণ ঘটায়। পরে ফায়ার সার্ভিসকর্মী ও থানা পুলিশ গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

এ ঘটনায় উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল আলীসহ স্থানীয় বিএনপির ১৩ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতপরিচয় ২০ থেকে ২৫ জনের নামে থানায় মামলা দায়ের করেন ক্ষতিগ্রস্ত অটোরিকশা চালক রুবেল মিয়া। মামলার অন্য আসামিরা হলেন- উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক আমজাদ হোসেন, পৌর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আলাউদ্দিন, যুগ্ম-সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গফুর, প্রচার সম্পাদক সাবেক পৌর কাউন্সিলর বাবুল হোসেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আবুল কাশেম, উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান রনি, বিএনপি কর্মী আব্দুস সামাদ, আল-হাসান, মো. আব্দুল হালিম ও আবু সালাম।

থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) সফিকুল ইসলাম মোল্যা বলেন, সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে ১০ ডিসেম্বর ঢাকাসহ সারাদেশ অচল করে দেওয়ার লক্ষ্যে শনিবার রাতে সিঙ্গাইর পৌর বিএনপি মিছিল বের করে। মিছিলে অংশ নেওয়া বিএনপির নেতাকর্মীরা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একটি অটোরিকশায় আগুন ও ককটেলের (হাতবোমা) বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকর্মী ও থানার পুলিশ সদস্যরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে মামলা করেন ক্ষতিগ্রস্ত অটোরিকশা চালক রুবেল মিয়া। মামলার তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এ ব্যাপারে সিঙ্গাইর পৌর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম ভূঁইয়া জয় বলেন, শনিবার বিএনপির দলীয় কোনো কর্মসূচি ছিল না। এদিন কেউ কোনো মিছিলও বের করেনি। হয়রানির করার উদ্দেশ্যেই বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা সাজানো মামলা দেওয়া হয়েছে। যত মামলা-হামলা করা হোক, বিএনপির জনস্রোত ঠেকানো যাবে না। তিনি মিথ্যা ও সাজানো মামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।