• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

হাসপাতালে বিচিত্র দুর্নীতি

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ২৮ জানুয়ারি ২০১৯  

মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সদর হাসপাতালের হিসাবরক্ষক সৈয়দ মো. মাহমুদ ফুয়াদ অনুমতি না থাকলেও তিনি ক্যাশিয়ারের দায়িত্ব পালন করছেন দুই পদে থেকে তিনি আত্মসাৎ করেছেন লাখ লাখ টাকা অনুপস্থিত থেকেছেন চাকরিস্থলে ভোগ করছেন বিনা ভাড়ায় সরকারি বাসা এমন দুর্নীতি অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তদন্ত টিম

সূত্র জানায়, সৈয়দ মো. মাহমুদ ফুয়াদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নির্দেশে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. মো. মিনহাজ উদ্দিনের দাখিল করা তদন্ত প্রতিবেদনে রয়েছে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা গত ৫ জানুয়ারি দাখিল করা তদন্ত প্রতিবেদনে সৈয়দ মো. মাহমুদ ফুয়াদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে

অভিযুক্ত সৈয়দ মো. মাহমুদ ফুয়াদ ২০১৭ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে কর্মরত তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ৯টি আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে হাসপাতালের জেনারেটরের তেল খরচের টাকা তছরুপ ছয় মাসে তেল খরচ বাবদ তিনি তুলেছেন পাঁচ লাখ ২১ হাজার ৬৬৪ টাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির হিসাবে সে সময় লোডশেডিং ছিল ৩৯ ঘণ্টা ২৫ টাকা িটার তেলের হিসাবে এ সময়ের জেনারেটর ব্যয় আনুমানিক ৬৩ হাজার টাকা তিনি এ খাতে প্রায় চার লাখ ৫৮ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাস থেকে মে মাস পর্যন্ত তিনি পাঁচ মাসে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বাবদ বিল তুলেছেন ১৮ লাখ টাকা, কিন্তু এ বিষয়ে আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা কিছুই অবগত নন হাসপাতালের আবাসিক চিকিসা কর্মকর্তার স্বাক্ষর জাল করে তিনি ১০টি স্থানীয় কোটেশনের মাধ্যমে প্রায় ৪২ লাখ টাকা তুলে নিয়েছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে সে ক্ষেত্রে জিনিসপত্র স্টক লেজারে এন্ট্রি করা হয়নি ছাড়া হাসপাতালের কোয়ার্টারে ২০১৭ সালের মার্চ থেকে বসবাস করলেও মাহমুদ ফুয়াদ ভাড়া পরিশোধ করেননি হিসাব অনুযায়ী এতে সরকার প্রায় দেড় লাখ টাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ইউজার ফি বাবদ প্রায় তিন লাখ টাকা আত্মসাতের প্রমাণও পেয়েছে তদন্ত কমিটি

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাহমুদ ফুয়াদের বিমানে যাতায়াত, ব্যক্তিগত চালচলন, সহকর্মীদের সঙ্গে আচরণ তার পদের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় তার জীবনযাপন অন্য কোনো আর্থিক উৎ ইঙ্গিত করে

এ বিষয়ে সৈয়দ মো. মাহমুদ ফুয়াদ বলেন, ‘আমি নির্দোষ অভিযোগ সবই বানোয়াট, ষড়যন্ত্র

তদন্ত কর্মকর্তা ডা. মো. মিনহাজ উদ্দিন প্রতিবেদন দাখিলের কথা স্বীকার করলেও এ বিষয়ে মন্তব্য প্রদানে রাজি হননি