• বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২১ ১৪২৯

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

মানিকগঞ্জে কুকুরে কামড়ানো রোগীর সংখ্যা বাড়ছে

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২  

মানিকগঞ্জের সর্বত্রই বেড়েছে কুকুরের উপদ্রপ। প্রতিদিনই কুকুরের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ছুটছেন ভুক্তভোগীরা। জেলায় কতগুলো কুকুর আছে, তার কোনো সঠিক পরিসংখ্যান নেই। জলাতঙ্ক রোগ থেকে বাঁচতে প্রতিদিন আক্রান্তরা ভিড় করছেন হাসপাতালে।

মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন গড়ে ২০ থেকে ২৫ জন লোক কুকুর দ্বারা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসেন ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য। হাসপাতালে পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন থাকলেও রোগীকে ওয়াস করার মতো মানসম্পন্ন ব্যবস্থা নেই।

সোমবার মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, শুধু কুকুর নয়, বিড়াল ও বেজির কামড়ে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসছেন সেবা নিতে। এ সময় এক নারী ও এক শিশুকে চিকিৎসা সেবা নিতে দেখা যায়।
বেজির কামড়ে আক্রান্ত রহিমা বেগমের (৬০) ছেলের স্ত্রী রাহেলা বলেন, সকালে শাশুড়ি বাড়ির পাশে গরুর ঘাস কাটছিলেন, এমন সময় হঠাৎ একটি বেজি এসে গাল কামড়ে ধরে। পরে অনেক কষ্ট করে বেজিকে ছাড়ানো হয়।

দৌলতপুর উপজেলার আবুডাঙ্গা থেকে মো. আশিক (৬) বিড়ালের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে এসেছে। এভাবে প্রতিদিন জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে কুকুর, বিড়াল ও শিয়াল দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছেন লোকজন।

হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক কাজী একে এম রাসেল বলেন, প্রতিদিন গড়ে ২০ থেকে ২৫ জন লোক কুকুর-বিড়াল দ্বারা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। মাঝে মধ্যে এই সংখ্যা বেড়ে যায়। গত সপ্তাহে শহরের বিভিন্ন এলাকায় একদিনে ৬০ জন লোককে কুকুরে কামড়িয়েছে। তিনি সকলকে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন।