• মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

বিরাট কোহলি-একজন ব্যাটসম্যান ও একজন অধিনায়ক

মানিকগঞ্জ বার্তা

প্রকাশিত: ৮ জানুয়ারি ২০১৯  

সময়ের অন্যতম সফল ক্রিকেটার বিরাট কোহলি। শুধু ব্যাট হাতে না, সফল হয়েছেন নেতৃত্বেও। সকলকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। কোথায় পৌঁছালেন কোহলি?

৭১ বছর আগে অস্ট্রেলিয়া অভিযান শুরু হয় ভারতের। লালা অমরনাথ থেকে শুরু করে গাভাস্কার, কপিল দেব, সৌরভ গাঙ্গুলি, দ্রাবিড় এমনকি ভারতের অন্যতম সফল কাপ্তান মহেন্দ্র সিং ধোনিও পারেননি। কিন্তু পেরেছেন কোহলি।

অজ়িদের ঘরে এই সিরিজের আগে সব মিলিয়ে ১১টি টেস্ট সিরিজ খেলেছে ভারত। জয় শূন্য, সিরিজ ড্র করেছে তিনবার। ২০০৩-০৪ সালে সুযোগ এসেছিল কিন্তু সেবার ভাগ্যদেবী সহায় হননি গাঙ্গুলিদের প্রতি। তবে সর্বশেষ বড় সাফল্য বলতে ছিল ১৯৮১ সালে ১-১ সিরিজ ড্র। আর এবার সবকিছুকে ছাড়িয়ে কোহলির সিরিজ জয়। ২০১৪-১৯ সালে কোহলি ৪৬টি টেস্টে অধিনায়কত্ব করেছেন। জয়ে পেয়েছেন ২৭টিতে, ড্র হয়েছে ১০টি ও হেরেছেন ১০টিতে। বিদেশের মাটিতে এটি ছিল কোহলির ৪র্থ টেস্ট জয়। এর আগে সৌরভ গাঙ্গুলি একাই এই আসনে অধিষ্টিত ছিলেন।

একটি পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ভারতের অন্যতম সফল দুই অধিনায়কের তুলনায় কোহলি এগিয়ে আছেন।

মহেন্দ্র সিং ধোনি: ম্যাচ ৬০, জয় ২৭ (বিদেশে ৬), পরাজয় ১৮, ড্র ১৫, জয়ের হার ৪৫.০০%

সৌরভ গাঙ্গুলি: ম্যাচ ৪৯, জয় ২১ (বিদেশে ১১), পরাজয় ১৩, ড্র ১৫, জয়ের হার ৪২.৮৫%

বিরাট কোহলি: ৪৬ ম্যাচ, জয় ২৭ (বিদেশে জয় ১২), পরাজয় ১০, ড্র ৯, জয়ের হার ৫৮.৬৯%)

এখানে দেখা যাচ্ছে মাত্র ৬ বছরে সবথেকে কম সংখ্যক ম্যাচে অধিনায়কত্ব করে কোহলি অন্য দুইজনের তুলনায় জয় পেয়েছেন বেশি বা সমান, ড্র করেছেন কম, হেরেছেন কম এবং বিদেশেও সর্বাধিক জয় পেয়েছেন । এই পরিসংখ্যান বলে দিচ্ছে আগামীতে অধিনায়ক কোহলি এক কিংবদন্তীতে পরিণত হতে যাচ্ছেন।

আরেকটা পরিসংখ্যান দেখলে অধিনায়ক কোহলির শ্রেষ্ঠত্ব আরও পরিস্কার হয়। ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার সর্বশেষ ২৩ টেস্টে সর্বাধিক সংখ্যক জয় পেয়েছেন এমন অধিনায়কদের তালিকায় কোহলির স্থান ২য়।

স্টিভ ওয়াহ: (জয় ১৭টি, পরাজয় ৪, ড্র ২, জয়ের হার ৭৩.৯১%)

বিরাট কোহলি: (জয় ১৫টি, পরাজয় ২, ড্র ৬, জয়ের হার ৬৫.২১%)

এই তালিকায় বিরাট কোহলির পরে আছেন রিকি পন্টিং। ভারতের মহেন্দ্র সিং ধোনি আছেন অষ্টম স্থানে।

ব্যাট হাতেও অধিনায়ক কোহলি অন্য অধিনায়কদের ছাড়িয়ে গেছেন। অধিনায়ক থাকাকালীন কোহলি ৭৪ ইনিংস খেলে ৪,৪৯২ রান সংগ্রহ করেছেন। শতক ১৮টি এবং সর্বোচ্চ রান ২৪৩। তার কাছাকাছি আছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তিনি ৯৬ ইনিংস খেলে ৩,৪৫৪ রান করেছেন। ধোনির শতক ৫ টি এবং সর্বোচ্চ রান ২২৪। তারপর একে একে সুনীল গাভাস্কার, মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন ও সৌরভ গাঙ্গুলির নাম আসে। গাভাস্কার ৩,৪৪৯, আজহারউদ্দিন ২,৮৫৬ ও গাঙ্গুলি ২,৫৬১ রান সংগ্রহ করেছেন।

একজন সফল ব্যাটসম্যান ও একজন সেরা অধিনায়ক হিসেবে নিজেকে সমান তালে ঠেলে নিয়ে যাচ্ছেন কোহলি। সামনের দিনগুলোতে নিজেকে কোন পর্যায়ে নিয়ে যাবেন তিনি সেটা সময় বলে দেবে।